Logo
আজঃ সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
শিরোনাম

হিট স্ট্রোক কেন হয়, কী করবেন?

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ২৪৭জন দেখেছেন
Image

এই ঋতুতে হিট স্ট্রোকের ঘটনা ঘটে।  প্রচন্ড গরমে অনেকেই এই সমস্যায় ভোগেন।  প্রতিকারের উপায় জানা থাকলে হিট স্ট্রোক থেকে বেচে থাকা যায়। হিট স্ট্রোক কী, কেন হয় এ বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়েছেন  ডা. তানভীর আহমেদ।

হিট স্ট্রোক এক ধরনের হাইপারথার্মিয়া। হাইপার হচ্ছে অধিক মাত্রা, আর থার্মিয়া মানে তাপ। শরীরে অধিক তাপমাত্রা বৃদ্ধিকেই বলা হয় হিট স্ট্রোক। আমাদের শরীরের ভেতরে নানা রাসায়নিক ক্রিয়ার কারণে সব সময় তাপ সৃষ্টি হতে থাকে। ঘামের সাহায্যে সেই তাপ শরীর থেকে বেরিয়ে যায়। কিন্তু একটানা রোদে থাকলে গরমে ঘামের সঙ্গে শরীরের অতিরিক্ত জল বেরিয়ে যায়। 

শরীর থেকে অতিরিক্ত পানি বেরিয়ে যাওয়ায় ডিহাইড্রেশন সৃষ্টি হয়। ঘামের সঙ্গে লবণ বেরিয়ে যাওয়াতে লবণের ঘাটতি দেখা দেয়। যার ফলে শরীরকে করে তোলে অবসন্ন ও পরিশ্রান্ত। এতে মাথাঘোরা বা অজ্ঞান হয়ে পড়তে পারেন অনেকেই। তৎক্ষণাৎ চিকিৎসার ব্যবস্থা না করলে মৃত্যুও হওয়া অস্বাভাবিক নয়। বাচ্চা, বয়স্ক ও যারা ওবেসিটিতে ভুগছে তারা হিট স্ট্রোকে সহজেই আক্রান্ত হয়।

প্রতিকারে কী করবেন যতটুকু সম্ভব এই গরমে রোদে কম বের হতে হবে। একান্তই বের হতে হলে সঙ্গে পানির বোতল রাখা দরকার ও মাঝে মাঝে পানি পান করা উচিত। তা না হলে শরীর অবসন্ন মনে হওয়া মাত্রই ছায়াযুক্ত বা শীতল কোনো স্থানে বিশ্রাম করতে হবে। 

যদি অবস্থা খারাপ মনে হয় তাহলে ঠান্ডা পানিতে ভেজানো কাপড় শরীর মুছে দিতে হবে। খাবার স্যালাইন খাওয়াতে হবে, যাতে শরীরের লবণ ও জলের শূন্যতা দূর করতে পারে। অজ্ঞান হয়ে গেলে বা মাথা ঘোরালে মাথায় পানি ঢালতে হবে। তাতেও যদি অবস্থার উন্নতি না হয়, তাহলে হিট স্ট্রোকে আক্রান্তকে হাসপাতালে নেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।


আরও খবর

যেসব কারণে রক্ত ওঠানামা করে

সোমবার ২৯ আগস্ট ২০২২




রাজধানীর যাত্রাবাড়ী হতে গাঁজাসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব

প্রকাশিত:সোমবার ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৭১জন দেখেছেন
Image

০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ র‌্যাব-১০ এর একটি আভিযানিক দল রাজধানী ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানাধীন শনির আখড়া এলাকায় একটি অভিযান পরিচালনা করে আনুমানিক ৮,৪০,০০০ টাকা মূল্যের ২৮ কেজি গাঁজাসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের নাম ১। মোঃ আসাদুল (৩৬) ও ২। মোঃ আমিরুল ইসলাম হৃদয় (৩০) বলে জানা যায়। এসময় তাদের নিকট থেকে মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত ০১টি পিকআপ ও ০১টি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিরা পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী। তারা বেশ কিছুদিন যাবৎ যাত্রাবাড়ীসহ ঢাকা শহরের বিভিন্ন এলাকায় গাঁজাসহ অন্যান্য মাদকদ্রব্য সরবরাহ করে আসছিল বলে জানা যায়।

গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদক মামলা রুজু করা হয়েছে।


আরও খবর



ঢাক-ঢোল জারি সারি গান ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচের ফাইনাল অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:রবিবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
Image
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: ঢাক-ঢোল ও জারি সারি গানের তালে আবহমান গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহি ধারণ করে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে বড়াল নদীতে ড. মজহারুল ইসলাম স্মৃতি নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা প্রতিযোগিতা ২০২২ এর ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) বিকেল উপজেলার বাঘাবাড়ীর বড়াল নদীতে অনুষ্ঠিত এ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে চর-আঙ্গারুর শাপলা এক্সপ্রেস। এ খেলায় রানার্সআপ হয়েছে বনগ্রামের নিউ উড়ন্ত বলাকা। 

গত ১৯ আগস্ট শুরু হওয়া ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ ফাইনাল প্রতিযোগিতার মাধ্যমে এ খেলা শেষ হয়েছে।  নদীর দুই পাড়ে লাখো মানুষের নিখাদ বিনোদনের খোরাক, বাঙালি সংস্কৃতির আদি ঐতিহ্য এ নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে উত্তরবঙ্গ ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়ন। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিরাজগঞ্জ- ৬ (শাহজাদপুর) আসনের সংসদ সদস্য প্রফেসর মেরিনা জাহান কবিতা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ তরিকুল ইসলাম, সাবেক সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চয়ন ইসলাম, কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. সাজ্জাদ হায়দার লিটন, পৌরসভার মেয়র মনির আক্তার খান তরু লোদী, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য সুমগ্ন করিম, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মুস্তাক আহমেদ প্রমূখ।

ঐতিহাসিক ফাইনাল নৌকা বাইচ দেখতে নদীর তীরে শত শত ছোট বড় নৌকায় সিরাজগঞ্জ, পাবনা ও নাটোরের হাজার হাজার নারী পুরুষের সমাগম ঘটে। এসময় বাঘাবাড়ি ব্রীজের উপর দাঁড়িয়ে হাজারো মানুষকে এ ফাইনাল নৌকা 
 বাইচ উপভোগ করতে দেখা গেছে। 

কেউ কেউ নিজস্ব নৌকায় নানা রকম সাজে সজ্জিত হয়ে নেচে গেয়ে উৎসবকে আরো রঙিন করে তোলেন। ঐতিহ্যবাহী এই নৌকা বাইচের সময় বাইচালরা ঢাক, ঢোল ও করতালের বাজনা আর জারি-সারি গানের তালে তালে বৈঠা চালিয়ে উপস্থিত দর্শকদের আনন্দে মাতিয়ে তোলেন।

নৌকা বাইচের আয়োজক ও উত্তরবঙ্গ ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি শাহজাহান সিরাজ বলেন, দীর্ঘ ১০ বছর পর বাঘাবাড়ী বড়াল নদীতে নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতার ফাইনাল খেলা শেষ হয়েছে। বাইচের প্রথম দিনে ১০ হাজারেরও বেশি মানুষ নৌকা বাইচ উপভোগ করেন। সিরাজগঞ্জ- পাবনা জেলার প্রায় ২৪টি নৌকা এ বাইচে
অংশ গ্রহণ করেছেন। লীগ ভিত্তিক এ প্রতিযোগিতার ফাইনালে মোটরসাইকেল, টেলিভিশন ও ফ্রিজ পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

ডিজিটাল যুগে আধুনিকতার ছোঁয়ায় গ্রাম বাংলার অনেক ঐতিহ্যই যখন হারিয়ে যেতে বসেছে, সংস্কৃতির সেই ক্রান্তিকালে বাঙালির হাজার বছরের ঐতিহ্যকে টিকিয়ে রাখতে নৌকা বাইচের আয়োজন সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে।

আরও খবর



রাশিয়ার গ্যাসের বিকল্প নেই: জার্মানি

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৭৫জন দেখেছেন
Image

জার্মানির পক্ষ্যে অল্প সময়ের মধ্যে রাশিয়ার গ্যাসের বিকল্প জ্বালানি বের করা বেশ কঠিন বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির চ্যান্সেলর ওলাফ ওলাফ শলৎস।

দেশটির একটি নাগরিক সভায় বৃহস্পতিবার রাতে এ মন্তব্য করেছেন তিনি। খবর আনাদোলুর। ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের প্রভাবে জ্বালানি নিয়ে বেকায়দায় আছে জার্মানিসহ ইউরোপের দেশগুলো।

দেশটির ক্ষমতাসীন স্যোশাল ডেমোক্রেট দলের রাজনৈতিক নেতারা মনে করছেন, গ্যাসকে বার্লিনের বিরুদ্ধে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে মস্কো। ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযানের বিরোধীতা করায় জর্মিানিতে গ্যাস সরবরাহ কন্ধ করে দিয়েছে মস্কো।

ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দিয়ে উদ্বৃত্ত গ্যাস পুড়িয়ে ফেলছে রাশিয়া। ইউক্রেনে হামলার আগে জার্মানির মোট চাহিদার ৫৫ শতাংশ গ্যাস সরবরাহ করতো রাশিয়া।

ইউক্রেনের হামলার পর রাশিয়া গ্যাস সরবরাহ অর্ধেকের বেশি কমিয়ে দেয়। ২০২৪ সাল নাগাদ জার্মানি গ্যাসের ওপর নির্ভশীলতা ১০ শতাংশে কমিয়ে আনবে বলে জানান ওলাফ শলৎস


আরও খবর



গ্যাটকো মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন পেছালো

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৭৯জন দেখেছেন
Image

গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ ১৩ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য নতুন দিন নির্ধারণ করেছেন আদালত। আগামী ১৬ অক্টোবর নতুন এ দিন ধার্য করা হয়েছে।

আজ বুধবার (২১ আগস্ট) কেরাণীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারে অবস্থিত ঢাকার-৩ বিশেষ আদালতের বিচারক আলী হোসেনের আদালতে মামলাটির অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু আসামি পক্ষের আইনজীবী খালেদা জিয়া অসুস্থ জানিয়ে সময় আবেদন করলে আদালত তা মঞ্জুর করে আগামী ১৬ অক্টোবর নতুন এ দিন ধার্য করেন।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী জিয়া উদ্দিন জিয়া গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে তার আইনজীবী মাসুদ আহম্মেদ তালুকদার হাজিরা দিয়েছেন বলেও জানান তিনি।

২০০৭ সালের ২ সেপ্টেম্বর দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) উপ-পরিচালক গোলাম শাহরিয়ার চৌধুরী চার দলীয় জোট সরকারের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া, তার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় এ মামলা করেন। মামলার পরদিন খালেদা জিয়া ও কোকোকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ওই বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর মামলাটি অন্তর্ভুক্ত করা হয় জরুরি ক্ষমতা আইনে। পরের বছর ১৩ মে খালেদা জিয়াসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে এ মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।



আরও খবর



র‌্যালি ও আলোচনার মধ্যে দিয়ে বিশ্ব নদী দিবস পালিত

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | জন দেখেছেন
Image

সৈকত শতদল: পাংশা  উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে আজ ২৫ সেপ্টেম্বর  রবিবার বিকেলে র‌্যালি ও আলোচনা অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে রাজবাড়ীর পাংশায় বিশ্ব নদী দিবস পালিত হয়েছে।

র‌্যালি শেষে উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মাদ আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় সংক্ষিপ্ত বক্তব্য প্রদান করেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রতন কুমার,পাংশা প্রেস ক্লাবের সহ সভাপতি সেলিম মাহমুদ প্রমুখ। অনুষ্ঠান সজ্ঞালনা করেন উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা শ্যামল কুমার বিশ্বাস।

উল্লেখ্য এবারের দিবসটির প্রতিপাদ্য ‘আমাদের জনজীবনে নৌপথ’। জনজীবনে নৌপথের সম্পৃক্ততা বাড়াতেই এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় নির্ধারণ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ। আমাদের দেশে নদী ও মানুষের জীবন অবিচ্ছেদ্য। সে কারণেই আমাদের মৃতপ্রায় নদী নিয়ে পরিবেশবাদীসহ সাধারণ মানুষের উদ্বেগ লক্ষ্য করা যায়। যদিও নদী রক্ষার তৎপরতা পৃথিবীজুড়েই দেখা যায়। নদী সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে প্রতি বছর সেপ্টেম্বর মাসের শেষ রোববার পালন করা হচ্ছে বিশ্ব নদী দিবস।

১৯৮০ সাল থেকে প্রতি বছর সেপ্টেম্বর মাস থেকে বিশ্ব নদী দিবস হিসেবে পালন করতে শুরু করে কানাডার ব্রিটিশ কলম্বিয়া ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি। যার আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছিল বিসি রিভারস ডে পালন দিয়ে। ১৯৮০ সালে কানাডার খ্যাতনামা নদীবিষয়ক আইনজীবী মার্ক অ্যাঞ্জেলো দিনটি ‘নদী দিবস’ হিসেবে পালনের উদ্যোগ নিয়েছিলেন। বিসি রিভারস ডে পালনের সাফল্যের হাত ধরেই তা আন্তর্জাতিক রূপ পায়।

২০০৫ সালে জাতিসংঘ নদী রক্ষায় জনসচেতনতা তৈরি করতে ‘জীবনের জন্য জল দশক’ ঘোষণা করে। সে সময়ই জাতিসংঘ দিবসটি অনুসমর্থন করে। এরপর থেকেই জাতিসংঘের বিভিন্ন সহযোগী সংস্থা দিবসটি পালন করছে, যা দিনদিন বিস্তৃতি হচ্ছে। বাংলাদেশে ২০১০ সাল থেকে এ দিবস পালিত হচ্ছে।


আরও খবর