Logo
আজঃ রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২
শিরোনাম

ইউপি চেয়ারম্যানের তিন দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৯০জন দেখেছেন
Image
জয়নুল আবেদন,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:  ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা ভানোর ইউনিয়নের মৎসজীবী লীগের সভাপতি শাকিল আহমেদ হত্যা মামলার প্রধান আসামি ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলামকে তিন দিনের রিমান্ড দিয়েছে আদালত। 

আজ মঙ্গলবার ( ১৫ নভেম্বর) দুপুরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তার করা পাঁচ  দিনের রিমান্ডের আবেদনের শুনানি শেষে ঠাকুরগাঁও চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক রমেশ কুমার ডাগা এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। সেই সাথে মামলার ১২ নম্বর আসামি তাজুল ইসলাম মানিককে দুই দিন ও ১১ নম্বার আসামি মনির হোসেন কাবাব দুইদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদীপক্ষের আইনজীবী এ্যাড. সৈয়দ আলম। আইনজীবী জানান, তদন্তের স্বার্থে  মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা প্রধান আসামী রফিকুল ইসলাম, তাজুল ইসলাম মানিক ও মনির হোসেনের পাঁচ দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত রফিকুল ইসলামের তিন দিন, মানিক ও মনিরের দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। অপর আসামি মমতাজ আলীর সাত দিনের রিমান্ড চাইলে অসুস্থ থাকায় আদালত তার রিমান্ড মঞ্জুর করেনি। 

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) প্রায় দুই শতাধিক লোকের শোডাউন নিয়ে আদালতে আত্মসমার্পন করে জামিন চাইতে গেলে জামিন না মঞ্জুর করে মামালার প্রধান আসামী রফিকুল ইসলামকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। আগামী ১৬ নভেম্বর আবারো শুনানীর দিন ধার্য করেন ঠাকুরগাঁও জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মামুনুর রশিদ। 

চেয়ারম্যানকে কারাগারে নেওয়ার সময় আদালতে উপস্থিত গণমাধ্যমকর্মীরা ছবি তুলতে গেলে সংবাদকর্মীদের উপর হামলার চেষ্টা করেন তার ভাড়াটে লোকজন। আদালত চত্বরে হত্যা মামলার প্রধান আসামীর দুইশতাধিক লোকের শোডাউন ও সাংবাদিকদের উপর হামলার চেষ্টায় ক্ষোভ প্রকাশ করে জেলার বিশিষ্টজনরা জানান, আদালত একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান। একজন হত্যা মামলার প্রধান আসামীর সাথে এতো লোকজন কিভাবে শোডাউন দিয়ে আদালত চত্বরে প্রবেশ করলো? 

সাংবাদিকদের কাজ হলো তথ্য সংগ্রহ করা। আসামীকে কারাগারে নেওয়ার সময় সাংবাদিকরা যখন ছবি তুলে তখন চেয়ারম্যানের লোকজন সাংবাদিকদের হামলার চেষ্টা করে। আদালতের বারান্দায় সন্ত্রাসীদের এমন ঘটনা সত্যিই আমরা হতাশ। দায়িত্বরত পুলিশ-প্রশাসন এর দায় এড়াতে পারে না। সাংবাদিকদের সাথে সন্ত্রাসীরা কেন এমন মারমুখী আচরণ করল? অবশ্যই প্রশাসন এর জবাব দিবেন। আর বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলে জানান তারা। 

গত ০৩ সেপ্টেম্বর তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ভানোর ইউনিয়নের হলদিবাড়ী বাজারে ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম ও যুবলীগ নেতা সাঈদ আলম দু'পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে সাঈদ আলমের ভাই মৎসজীবীলীগ নেতা শাকিল আহমেদ মারা যায়। পরে বালিয়াডাঙ্গী থানায় ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামসহ ২০ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন যুবলীগ নেতা সাঈদ আলম। সেই মামলায় এখন পর্যন্ত ৮ জনকে গ্রেফতার করে আইনশৃংখলা বাহিনী। 

আরও খবর



মুজিববর্ষের ৩০টি ঘর উদ্বোধন করলেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ১৬জন দেখেছেন
Image
পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃ নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, বিএনপি চায় নয়া পল্টনে জনসভা করতে। নয়া পল্টনতো জনসভা করার যায়গা না, গাড়ি চলাচলের যায়গা। বিএনপি ১০ ডিসেম্বর নয়া পল্টনে জনসভা করে একটি গোলাযোগ তৈরি করতে চায়।
শুক্রবার বেলা এগারোটায় পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার চরমোন্তাজ মান্তাপল্লী মাঠে আয়োজিত অবহেলিত চরাঞ্চল উন্নয়নে শেখ হাসিনা শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

তিনি আরও বলেন, মির্জা ফকরুল ইসলাম বলেছেন, দেশ নাকি তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিনত হয়েছে। যদি তলাবিহীন ঝুড়িতে দেশ পরিনত হতো তাহলে এতো উন্নয়ন হতে পারতো না। মানুষ তাহলে না খেয়ে দিন পার করতো। বিএনপির তলা ফেটে গেছে। বিএনপি জনগণের কাছে যায় না। বিএনপি এখন বিভিন্ন দেশের এ্যাম্বাসেডরের কাছে ধন্যা দেয়। 

এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, পটুয়াখালী-৪ আসনের সাংসদ অধ্যক্ষ মহিব্বুর রহমান মহিব, রাঙ্গাবালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাশফাকুর রহমানসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও উপজেলার সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের প্রধানগন। এর আগে মন্ত্রী মান্তাদের জন্য মুজিববর্ষের ৩০টি ঘর উদ্বোধন করেন। 

আরও খবর



নেত্রকোনার খালিয়াজুরীতে ধনু নদীর তীরে ঐতিহ্যবাহী কাঠের বাজার

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ১৪জন দেখেছেন
Image

নেত্রকোনা প্রতিনিধিঃ  চির সবুজের নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক অপরুপ সৌন্দর্যের লীলাভূমি নেত্রকোনা,এ জেলার মাঝে অভিরাম বয়ে চলেছে অনেক সুন্দর সুন্দর নদী। জেলার ধনু নদীর তীর ঘেঁষা খালিয়াজুরী উপজেলার চাকুয়া ইউনিয়নের একটি গ্রাম আর এই গ্রামেই রয়েছে জেলার ঐতিহ্যবাহী কাঠের বাজার লেপসিয়া। বহু প্রাচীন এ বাজারে নদীর পাড়েই নেত্রকোনা জেলার সবচেয়ে বড় কাঠের মোকাম। ধনু নদীর পূর্ব পাড়ে লেপসিয়া গ্রামের মোহনায় বিশাল এলাকা জুড়ে চলে কাঠের এ বাণিজ্য।

এক সময়ে সুন্দরীকাঠের বিশাল বাজার হিসাবে পরিচিত নেত্রকোনা জেলার খালিয়াজুরী উপজেলার চাকুয়া ইউনিয়নের লেপসিয়া এখন দেশীয় গ্রামীণ কাঠের সর্ববৃহৎ ভাসমান বাজার।গোল কাঠ বিক্রির জন্য নিয়ে নেত্রকোনা জেলাসহ বিভিন্ন উপজেলার ছোট ও মাঝারি কাঠ ব্যাবসায়ীরা আসেন এই বাজারে আর সেই কাঠ স্থানীয় ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে নৌ-যোগে এবং ট্রাকের মাধ্যমে চলে যায় রাজধানী ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে। ভাসমান এ কাঠ বাজারে প্রতি শনিবার প্রায় কোটি টাকার কাঠ বেচাকেনা হয়।কালের বিবর্তনে দেশীয় কাঠের ব্যবসা শুরু করে এখানকার ব্যবসায়ীরা। যা ধীরে ধীরে রূপ নেয় নেত্রকোনার সর্ববৃহৎ ভাসমান কাঠের বাজারে।

লেপসিয়া ধনু নদীর পাশেই রয়েছে শালদীঘা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও মুক্তিযোদ্ধাচরকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে একটি ব্যবসায়িক বলয়। ময়মনসিংহ বিভাগের নেত্রকোনা জেলার বিভিন্ন উপজেলায় হাজার হাজার ব্যবসায়ী কাঠ বিক্রি করেন ওই বাজারে। লেপসিয়া বাজারে কেনা কাঠ চেরাই করে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন উপজেলার হাটবাজারে নিয়ে বিক্রি করা হয়।

ব্যবসা-বাণিজ্য সমৃদ্ধ খালিয়াজুরী উপজেলাটি গোটা দেশে ব্যাপক পরিচিতি পেলেও কিছু অসাধু ব্যাক্তির পদচারণায় বর্তমানে ব্যবসায়ীদের দুর্দিন যাচ্ছে।

ধনু নদীর পশ্চিম পারে ও আরেকটি বাজার রয়েছে আদর্শ নগর। এখানেও চলে কাঠের জমজমাট ব্যবসা। ধনু নদীর মধ্যে বড় বড় নৌকা বোঝাই কাঠ আর কাঠ। কখনও কখনও নানান রকম গাছ পানিতে ভাসিয়েও রাখা হয়। দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে কাঠ ব্যবসায়ীরা এখানে আসেন কাঠ কিনতে। বড় বড় কার্গো জাহাজ বোঝাই করে সেসব কাঠ পাঠিয়ে দেওয়া হয় দেশের বিভিন্ন স্থানে।

দেশের সর্ববৃহৎ কাঠের বাজার লেপসিয়াতে একটি ট্রাক লোড পয়েন্ট নির্মাণ করা হলে বাড়বে ব্যবসার প্রসার, কমবে কাঠের মূল্য ও পরিবহন খরচ, বাঁচবে সময়। তাই সরকারের কাছে একটি ট্রাক লোড পয়েন্টের দাবী লেপসিয়া বাজার কাঠ ব্যবসায়ীদের।

এবিষয়ে জানতে চাইলে চাকুয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বলেন,লেপসিয়া বাজারটি জেলার ভিতরে কাঠের জন্য বিখ্যাত, এই বাজারে প্রতি শনিবার দেশের দূর দূরান্ত থেকে শত শত কাঠ ব্যবসায়ী এই বাজারে কাঠ বেচাকেনা করে,প্রতি শনিবার এই বাজারে কোটি কোটি টাকার কাঠ বেচাকেনা হয়।


আরও খবর



পাকিস্তানকে ১৫৩ রানের টার্গেট দিল নিউজিল্যান্ড

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৭৯জন দেখেছেন
Image

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে পাকিস্তানকে ১৫৩ রানের টার্গেট দিয়েছে নিউজিল্যান্ড।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শাহিন আফ্রিদিদের বোলিং তোপে হাত খুলে মারতে পারেনি কিউইরা। পাওয়ার প্লেতে ২ উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত তুলতে পেরেছিল ৩৮ রান।

অধিনায়ক কেন উইলিয়ামস সেই ধাক্কা সামলাতে গিয়ে ৪২ বলে ৪৬ রানের মন্থর ইনিংস খেলেছেন। তবে ৩৫ বলে ৫৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন ডেরিল মিচেল। 


আরও খবর

নেইমার কী পেলে হতে পারবেন?

বৃহস্পতিবার ২৪ নভেম্বর ২০২২

কাতার বিশ্বকাপই কি শেষ নেইমারের ?

সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২




ঢাকার মতিঝিল ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ হতে ইয়াবাসহ ০৩ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০।

প্রকাশিত:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | জন দেখেছেন
Image

গতকাল ২৫ নভেম্বর ২০২২ র‌্যাব-১০ এর একটি আভিযানিক দল রাজধানী ঢাকার মতিঝিল থানাধীন ফকিরাপুল এলাকায় একটি অভিযান পরিচালনা করে ১,৬৮০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত ব্যক্তির নাম বেলাল উদ্দিন (২৮) বলে জানা যায়। এসময় তার নিকট থেকে ০১টি মোবাইল ফোন ও নগদ- ৩৩৫ টাকা উদ্ধার করা হয়।

এছাড়া একই তারিখ র‌্যাব-১০ এর অপর একটি আভিযানিক দল ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন কালীগঞ্জ এলাকায় অপর একটি অভিযান পরিচালনা করে ৩০০  পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ০২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের নাম ১। মোঃ মাহফুজ (৩৩) ও ২। বিল্লাল মোল্লা (৩১) বলে জানা যায়। এসময় তাদের নিকট থেকে ০২টি মোবাইল ফোন ও নগদ- ৪,০৩০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিরা পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী। তারা বেশ কিছুদিন যাবৎ মতিঝিল ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় ইয়াবাসহ অন্যান্য মাদকদ্রব্য সরবরাহ করে আসছিল।

গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় পৃথক মাদক মামলা রুজু করা হয়েছে।


আরও খবর



বারহাট্টায় মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে যেতে শীতকালেও নৌকার প্রয়োজন

প্রকাশিত:বুধবার ২৩ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৩২জন দেখেছেন
Image

সোহেল খান দূর্জয় : যাদের হাত ধরে এদেশে স্বাধীনতা এসেছে তাদেরই একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা জজ মিয়া খান। শহরে থেকেও যেন তিনি ভাটি অঞ্চলে বসবাস করছেন।যেখানে অগ্রহায়ণ মাসের ফসল উৎপাদন করে ঘরে তোলা হচ্ছে। সফলী জমি গুলো সরিষা চাষ করার উপযোগী হয়ে খড়খড়া হয়ে গেছে, সেই সময় নেত্রকোনা বারহাট্টা উপজেলা আসমা ইউনিয়নের আসমা গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জজ মিয়া খানের বাড়িতে যেতে নৌকা ব্যবহার করতে হচ্ছে। 

হেমন্তকাল বেদ করে শীত কাল এসে গেছে, এখনও জজ মিয়ার বাড়ির সামনে পানি থইথই করছে। বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জজ মিয়া খানের  বড় সন্তান নূরুল আমিন খান সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগ এর সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা এই বছরের বন্যার পর থেকে খুব কষ্টে আছি। অল্প জায়গার জন্য একটি রাস্তা করতে পারছি না।  এক সাইটের জমি আমার আপন খালু শাহজাহান খান এর , আরেক সাইটের জমি আমার চাচা জানু মিয়ার । আমার ভাই পুলিশে চাকরি করে। সে রাস্তার জন্য  বর্তমান বাজার মূল্য থেকে এই জমির দাম বেশি দিতে চেয়েছে। কিন্তু তাতেও কোন লাভ হচ্ছে না। এখন এই নৌকাটিই আমাদের প্রধান বাহন। এটি ছাড়া এক মুহূর্ত চলতে পারি না। আমার বাবা কয়েকদিন যাবৎ খুব অসুস্থ,ঘর থেকে ধরে ধরে বের করতে হয়। 

এই ব্যপারে কোন অভিযোগ হয়েছে কি-না জানতে চাইলে নূরুল আমিন খান বলেন গত মাস দুয়েক আগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি অভিযোগ দিয়েছি। কিন্তু কোন ফল হয়নি। 

স্হানীয় সূত্রে জানা যায় জজ মিয়া খানের বাড়িতে যেতে সামনে যে জমিটুকু আছে সেই জমির মালিক তার আত্মীয়। জজ মিয়া সরলসোজা মানুষ। অন্য কোন মুক্তিযোদ্ধা হলে এত দিনে রাস্তা হয়ে যেত।

জমির মালিক শাহজাহান খান বলেন, এই জমির পশ্চিম পাশে একটি রাস্তা রয়েছে। ইচ্ছে করলে  ঐ রাস্তা দিয়ে তারা যাতায়াত করতে পারে। আমার দুই ছেলে। এই জায়গা টি বাসা করার জন্য কিনেছি। রাস্তার জন্য কিছু জমি বিক্রি করলে আমার জায়গা কমে যাবে। 

আসমা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম খান চন্দু বলেন, আমি রাস্তা দিতে চাই। কিন্তু রাস্তার দেওয়ার আগেই বাঁধা পড়লে তো তা সম্ভব হয়ে উঠে না। বিষয়টি আসলেই দুঃখ জনক আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করবো, যেন তাড়াতাড়ি এই রাস্তাটি হয়। 

সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শাহ মোহাঃ আবদুল কাদের বলেন, বারহাট্টা শহরের পাশে মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জজ মিয়া খানের বাড়ি। এখানে সারাবছর পানি লেগে থাকে, সে অসুস্থ, তাকে দেখতে গেলে কাঁদা পানির উপর দিয়ে যেতে হয়। এটা আসলেই লজ্জা জনক। আমি চাই দ্রুত যেন এই মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি যাওয়ার রাস্তাটি হয়ে যায়। 

বারহাট্টা উপজেলায় নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম মাজহারুল ইসলাম বলেন, মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জজ মিয়া খানের বাড়িতে যাওয়ার জন্য নিজস্ব কোন ভূমি না থাকায় রাস্তা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। জমির মালিক পক্ষ টাকা দিয়েও জমি বিক্রয় করতে রাজি না হওয়ায় রাস্তাটি হচ্ছে না। এর পরও চেষ্টা করবো যেন রাস্তাটি করা যায়।


আরও খবর