Logo
আজঃ রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২
শিরোনাম

মহানবী (সা.)’র সুমহান আদর্শ অনুসরণের মাধ্যমেই মুসলমানদের সফলতা নিহিত রয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ১০৮জন দেখেছেন
Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, হযরত মুহাম্মদ  (সা.)’র সুমহান আদর্শ ও সুন্নাহ অনুসরণের মাধ্যমেই মুসলমানদের অফুরন্ত কল্যাণ, সফলতা ও শান্তি নিহিত রয়েছে। ‘ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)’ উপলক্ষে দেওয়া এক বাণীতে শনিবার তিনি এ কথা বলেন। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব, বিশ্বমানবতার মুক্তির দিশারী, বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর জন্ম এবং ওফাতের পবিত্র স্মৃতি বিজড়িত ১২ রবিউল আউয়াল তথা ‘ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)’ বিশ্ববাসী বিশেষত মুসলমানদের জন্য অত্যন্ত পবিত্র ও মহিমান্বিত দিন। এ উপলক্ষে আমি বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল মুসলিম উম্মাহ্কে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানাচ্ছি।’ 

তিনি বলেন, মহান আল্লাহ তা’আলা আমাদের প্রিয়নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে এ পৃথিবীতে প্রেরণ করেছেন শান্তি, মুক্তি, প্রগতি ও সামগ্রিক কল্যাণের জন্য রাহমাতুল্লিল আ’লামীন’ তথা সারা জাহানের রহমত হিসেবে। নবী করিম (সা.)-কে বিশ্ববাসীর রহমত হিসেবে আখ্যায়িত করে পবিত্র কোরআনে মহান আল্লাহ বলেছেন, ‘আমি আপনাকে সমগ্র বিশ্বজগতের জন্য রহমতরূপে প্রেরণ করেছি’ (সূরা আল-আম্বিয়া, আয়াত: ১০৭)।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, হযরত মুহাম্মদ (সা.) এসেছিলেন তওহিদের মহান বাণী নিয়ে। সব ধরনের কুসংস্কার, অন্যায়, অবিচার, পাপাচার ও দাসত্বের শৃঙ্খল ভেঙে মানবসত্তার চিরমুক্তির বার্তা নিয়ে এসেছিলেন তিনি। বিশ্ববাসীকে তিনি মুক্তি ও শান্তির পথে আসার আহ্বান জানিয়ে অন্ধকার যুগের অবসান ঘটিয়েছিলেন এবং সত্যের আলো জ্বালিয়েছেন। তিনি বিশ্ব ভ্রাতৃত্ব প্রতিষ্ঠা, ন্যায় ও সমতাভিত্তিক সমাজ গঠন এবং মানব কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত করে বিশ্বে শান্তির সুবাতাস বইয়ে দিয়েছিলেন।  

শেখ হাসিনা বলেন, বিশ্বশান্তির অগ্রনায়ক রাষ্ট্রের নিরাপত্তা, নাগরিকদের মধ্যে শান্তি-সম্প্রীতি বজায় রাখাসহ নানা দিক বিবেচনা করে প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করেন মানব ইতিহাসের প্রথম প্রশাসনিক সংবিধান ‘মদিনা সনদ’। বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় মহানবী (সা.)- এর অনবদ্য ভূমিকার আরেকটি অনন্য স্মারক হুদায়বিয়ার সন্ধি। বাহ্যিক পরাজয়মূলক হওয়া সত্ত্বেও কেবল শান্তি প্রতিষ্ঠার স্বার্থে তিনি এ সন্ধিতে স্বাক্ষর করেন। তাঁর অমিত সাহস, ধৈর্য ও বিচক্ষণতা তখনকার মানুষকে যেমন বিমুগ্ধ করে, তেমনি অনাগত মানুষদের জন্যও শান্তি প্রতিষ্ঠার আদর্শ ও অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকবে। 

তিনি বলেন, মহানবী (সা.)-এর শান্তিপূর্ণ ‘মক্কা বিজয়’ মানব ইতিহাসের এক চমকপ্রদ অধ্যায়। কার্যত তিনি বিনা যুদ্ধে, বিনা রক্তপাতে ও বিনা ধ্বংসে মক্কা জয় করেন। শত অত্যাচার-নির্যাতন ও যুদ্ধ করে আজীবন যে জাতি নবী করিম (সা.)-কে সীমাহীন কষ্ট দিয়েছে, সেসব জাতি ও গোত্রকে মক্কা বিজয়ের দিন তিনি অতুলনীয় ক্ষমা প্রদর্শন করে এবং তাদের সঙ্গে উদার মনোভাব দেখিয়ে সমাজে শান্তি-শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠা করেন। ক্ষমা ও মহত্ত্বের দ্বারা মানুষের মন জয় করে শান্তি ও শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠার এমন নজির বিশ্বে দুর্লভ। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাসের মহামারিসহ আজকের দ্বন্ধ-সংঘাতময় বিশ্বে প্রিয়নবী (সা.)-এর অনুপম জীবনাদর্শ, তাঁর সর্বজনীন শিক্ষা ও সুন্নাহর অনুসরণ এবং ইবাদতের মাধ্যমেই বিশ্বের শান্তি, ন্যায় এবং কল্যাণ নিশ্চিত হতে পারে বলে আমি মনে করি। 

তিনি বলেন, আমার দৃঢ় বিশ্বাস, মহানবী (সা.)-এর সুমহান আদর্শ ও সুন্নাহ অনুসরণের মধ্যেই মুসলমানদের অফুরন্ত কল্যাণ, সফলতা ও শান্তি নিহিত রয়েছে। তাই ধর্মীয় ও পার্থিব জীবনে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর শিক্ষা সমগ্র মানবজাতির জন্য অনুসরণীয়। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)-এর এই দিনে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহ্ তথা বিশ্ববাসীর শান্তি মঙ্গল ও সমৃদ্ধি কামনা করছি। মহান আল্লাহ আমাদেরকে মহানবী (সা.)- এর সুমহান আদর্শ ও সুন্নাহ্ যথাযথভাবে অনুসরণের মাধ্যমে দেশ, জাতি ও মানবতার কল্যাণে কাজ করার তৌফিক দান করুন।



আরও খবর

এক দিনের সফরে যশোরে প্রধানমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার ২৪ নভেম্বর ২০২২




বাবার পর ভারতে ছেলেও প্রধান বিচারপতি, শপথ নিলেন ধনঞ্জয় চন্দ্রচূড়

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৬ নভেম্বর ২০২২ | ৮২জন দেখেছেন
Image

ভারতের ৫০তম প্রধান বিচারপতি হিসেবে শপথগ্রহণ করেছেন বিচারপতি ধনঞ্জয় যশবন্ত চন্দ্রচূড়। বুধবার রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু চন্দ্রচূড়কে শপথবাক্য পাঠ করান। মঙ্গলবারই সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির পদ থেকে অবসর গ্রহণ করেছেন উদয় উমেশ ললিত। শপথ নেওয়ার পরেই চন্দ্রচূড় বলেছেন, “আমার কাজ কথা বলবে”।

১১ অক্টোবর কেন্দ্রীয় সরকারকে চিঠি লিখে বিচারপতি ললিত তার উত্তরসূরি হিসেবে চন্দ্রচূড়ের নাম প্রস্তাব করেছিলেন। কেন্দ্রীয় আইন মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে চন্দ্রচূড়ের নাম রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানো হলে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মতি জানান। 

চন্দ্রচড়ের বাবা যশবন্ত বিষ্ণু (ওয়াই ভি) চন্দ্রচূড় আট বছর (১৯৭৮-১৯৮৫) ভারতের প্রধান বিচারপতি ছিলেন। এত দীর্ঘ সময় ধরে ভারতে কেউ প্রধান বিচারপতি পদে থাকেননি। পিতা এবং পুত্র দু’জনেই ভারতের প্রধান বিচারপতি হচ্ছেন, এমন নজিরও আগে দেখা যায়নি। ২০১৬ সালে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হিসেবে কাজ শুরু করা চন্দ্রচূড় প্রধান বিচারপতির পদে ২০২৪ সালের ১০ নভেম্বর পর্যন্ত থাকবেন। 

সূত্র : আনন্দবাজার


আরও খবর



পাকিস্তানকে ১৫৩ রানের টার্গেট দিল নিউজিল্যান্ড

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৭৮জন দেখেছেন
Image

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে পাকিস্তানকে ১৫৩ রানের টার্গেট দিয়েছে নিউজিল্যান্ড।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শাহিন আফ্রিদিদের বোলিং তোপে হাত খুলে মারতে পারেনি কিউইরা। পাওয়ার প্লেতে ২ উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত তুলতে পেরেছিল ৩৮ রান।

অধিনায়ক কেন উইলিয়ামস সেই ধাক্কা সামলাতে গিয়ে ৪২ বলে ৪৬ রানের মন্থর ইনিংস খেলেছেন। তবে ৩৫ বলে ৫৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন ডেরিল মিচেল। 


আরও খবর

নেইমার কী পেলে হতে পারবেন?

বৃহস্পতিবার ২৪ নভেম্বর ২০২২

কাতার বিশ্বকাপই কি শেষ নেইমারের ?

সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২




মুজিববর্ষের ৩০টি ঘর উদ্বোধন করলেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ১৬জন দেখেছেন
Image
পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃ নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, বিএনপি চায় নয়া পল্টনে জনসভা করতে। নয়া পল্টনতো জনসভা করার যায়গা না, গাড়ি চলাচলের যায়গা। বিএনপি ১০ ডিসেম্বর নয়া পল্টনে জনসভা করে একটি গোলাযোগ তৈরি করতে চায়।
শুক্রবার বেলা এগারোটায় পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার চরমোন্তাজ মান্তাপল্লী মাঠে আয়োজিত অবহেলিত চরাঞ্চল উন্নয়নে শেখ হাসিনা শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

তিনি আরও বলেন, মির্জা ফকরুল ইসলাম বলেছেন, দেশ নাকি তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিনত হয়েছে। যদি তলাবিহীন ঝুড়িতে দেশ পরিনত হতো তাহলে এতো উন্নয়ন হতে পারতো না। মানুষ তাহলে না খেয়ে দিন পার করতো। বিএনপির তলা ফেটে গেছে। বিএনপি জনগণের কাছে যায় না। বিএনপি এখন বিভিন্ন দেশের এ্যাম্বাসেডরের কাছে ধন্যা দেয়। 

এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, পটুয়াখালী-৪ আসনের সাংসদ অধ্যক্ষ মহিব্বুর রহমান মহিব, রাঙ্গাবালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাশফাকুর রহমানসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও উপজেলার সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের প্রধানগন। এর আগে মন্ত্রী মান্তাদের জন্য মুজিববর্ষের ৩০টি ঘর উদ্বোধন করেন। 

আরও খবর



পাংশায় দিনব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৬ নভেম্বর ২০২২ | ৮৬জন দেখেছেন
Image

সৈকত শতদল ,রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধি: পাংশা উপজেলা পরিষদ চত্তরে দিনব্যাপি ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৯ই নভেম্বর বুধবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মাদ আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন পাংশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফরিদ হাসান ওদুদ,পাংশা সহকারী কমিশনার ভূমি মোঃ মাসুদুর রহমান রুবেল, পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ তদন্ত ইততেখার আলম প্রধান, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ জালাল উদ্দির বিশ্বাস, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রোকেয়া বেগম, কৃষি কর্মকর্তা রতন কুমার ঘোষ। অনুষ্ঠান সজ্ঞালনা করেন পাংশা উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা শ্যামল কুমার বিশ্বাস। 

বক্তাগণ বলেন ডিজিটাল সেবার সুফল এখন মানুষ ঘরে বসে পাচ্ছে। প্রযুক্তির মাধ্যে সেবার মান বৃদ্ধিতে কাজ করছে বর্তমান সরকার। উদাহরণ হিসেবে জরুরী সেবা ৯৯৯ এর কথা উল্লেখ করেন,এছারাও তথ্য সেবা ৩৩৩ কল সেন্টার, কৃষি সেবা কল সেন্টার ১৬১২৩, ভূমি সেবা ১৬১১২। 

এ মেলায় প্রদর্শনী ষ্টল সমূহকে  ৪টি ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করা হয়েছে প্যাভিলিয়ন ১ এ রয়েছে উদ্ভাবনী ও স্টার্টআপ, প্যাভিলিয়ন ২ এর রয়েছে ডিজিটাল সেবা, প্যাভিলিয়ন ৩ এর রয়েছে হাতের মুঠোয় সেবা, প্যাভিলিয়ন ৪ এ রয়েছে শিক্ষা দক্ষতা উন্নয়ন এবং কর্মসংস্থান। 

মেলায় ব্যাংক ও অর্থিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে ব্যাংক এশিয়া পাংশা শাখা অংশগ্রহন করে,এছারাও ডিজিটাল ভূমি সেবা, ই নথি কার্যক্রম ,স্ব্যাস্থ্য সেবা ,কৃষি সেবা সম্পের্কে জনসাধারণের মধ্যে প্রচারণা করা হয়।  কুইজ প্রতিয়োগীতা ও পুরষ্কার বিতরনের মধ্যে দিয়ে বিকেলে ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা শেষ হয়।    


আরও খবর



যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর মহাসমাবেশ পরিণত হবে জনসমুদ্রে: পরশ

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৯৪জন দেখেছেন
Image

আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেছেন, ১১ নভেম্বর থেকে যুবলীগের দখলে থাকবে রাজপথ। আমরা ধারণা করছি, যুবলীগের প্রতিষ্ঠার ৫০ বছরে মহাসমাবেশ সোহরাওয়ার্দী উদ্যান জনসমুদ্রে পরিণত হবে। তিনি বলেন, আন্দোলন-সংগ্রামের নামে বিএনপি-জামায়াত যদি এদেশের সাধারণ জনগণের জানমালের ক্ষতি করার চেষ্টা করে তাহলে রাজপথেই তাদের সমুচিত জবাব দিবে যুবলীগ।

বুধবার (৯ নভেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধুর এভিনিউয়ে আওয়ামী যুবলীগ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

পরশ বলেন, আওয়ামী যুবলীগের দীর্ঘ ৫০ বছরের পথ-পরিক্রমায় সকল সংকট-সংগ্রামে যুবলীগের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। যে মুহূর্তে দাঁড়িয়ে আমরা যুবলীগের নেতা-কর্মীরা আনন্দ, উচ্ছ্বাস ও উদ্দীপনা নিয়ে সুবর্ণজয়ন্তী পালন করছি; সেই মুহূর্তে বাংলাদেশ বিরোধী বিএনপি-জামাত স্থিতিশীল বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করছে। ‘চারিদিকে নাগিনীরা ফেলিতেছে বিষাক্ত নিঃশ্বাস। সেই প্রেক্ষাপটে দাঁড়িয়ে আমাদের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন এবং ১১ নভেম্বর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিতব্য যুব মহাসমাবেশ। এই মহা সমাবেশের মধ্য দিয়ে রচিত হবে স্বাধীনতাবিরোধীদের জন্য ইস্পাত-কঠিন ভিত্তি; যা বিএনপি-জামাতের কাছে অজেয়, দুর্লঙ্ঘনীয়। 



আরও খবর