Logo
আজঃ সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
শিরোনাম

‘সে আমার ক্যারিয়ার ধ্বংসের খেলায় মেতেছে’

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ মার্চ ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ২৭৭জন দেখেছেন
Image

আসসালামুআলাইকুম। সবাইকে আমার শুভেচ্ছা। আমাকে নিয়ে বেশকিছু গণমাধ্যমে একটি খবর প্রকাশিত হয়েছে যে, আমি ইলিয়াসের করা একটি মামলার পরিপ্রেক্ষিতে যে কোন সময় গ্রেফতার হতে পারি। এছাড়া আমার মোবাইল ফোন বন্ধ বা আমাকে ফোনে পাওয়া যাচ্ছে না বলেও বলা হয়েছে খবরগুলোতে। আমি আমার সকল সাংবাদিক ভাইদের পরিপূর্ণ সম্মান এবং বিশ্বাস করি। আমার সকল ভালো বা খারাপ সময়ে তারা আমার পাশেই ছিলেন, আছেন এখনও। আমি তাদের এই ভালোবাসা এবং সমর্থনের জন্য আজীবন কৃতজ্ঞ।

এবার আমি যে খবরটি প্রকাশিত হয়েছে সে প্রসঙ্গে বলছি, আমার বিরুদ্ধে যে মামলাটি ইলিয়াস করেছে তা সম্পূর্ণ হয়রানিমূলক। আমাকে নাজেহাল করার জন্যই এসব মামলা করা হচ্ছে। যেন আমি মিডিয়াতে কাজ না করতে পারি। আমার সম্মানহানি হয়। এ মাসেই আমার অভিনীত 'বসন্ত বিকেল' সিনেমাটি মুক্তি পাবার কথা রয়েছে। মূলত ইলিয়াস আমার সিনেমা রিলিজের বিষয়টি জানার পর থেকেই ক্ষতি করার চেষ্টা করছে। সে আমার ক্যারিয়ার ধ্বংসের খেলায় মেতেছে। আমি যেন সামাজিক মানসিকভাবে ভেঙে পড়ি এবং ক্ষতিগ্রস্ত হই এটাই তার চাওয়া। আর দেশের আইনের প্রতি আমি বরাবরই শ্রদ্ধাশীল। সে কারণেই আমার প্রতি যে অন্যায়, ক্ষতি ইলিয়াস করেছে তার সুবিচারের জন্য আমি নিজেই আইনের দ্বারস্থ হয়েছি এবং আমার করা মামলা দুটির নিয়মিত কার্যক্রমও চলছে। তারই ধারাবাহিকতায় গত ২ মার্চ ঢাকা জর্জ কোর্টে ইলিয়াসের বিরুদ্ধে যে মামলাটি আমি করেছি তার বাদী হিসেবে বিবাদী ইলিয়াসের জামিন শুনানির দিন আমি উপস্থিত ছিলাম। যদিও সে নিজেই অসুস্থতার অজুহাতে আদালতে হাজির হয়নি। যাই হোক আইন তার নিজস্ব গতিতেই চলবে এবং আমি সুবিচার পাবো সেই বিশ্বাস আমার আছে পরিপূর্ণভাবেই।

আর আরেকটি বিষয় আমাকে ফোনে না পাওয়া যাওয়া প্রসঙ্গে বলছি - আমি গেলো বেশ কিছুদিন ধরেই মানসিক এবং শারীরিকভাবে কিছুটা অসুস্থ। কারণে-অকারণে নানা ধরণের কল আসে যা আমার পক্ষে সবসময় ধরা সম্ভব হচ্ছে না। যে কারণে আমার ফোনটি সাময়িকভাবে বন্ধ রয়েছে। তবে আমাকে যে কোন দরকারে আমার ব্যক্তিগত ফেসবুক মেসেঞ্জার বা হোয়াটসআপ এ যোগাযোগ করলেই আমাকে পাওয়া যাবে। সাময়িক এই অসুবিধার জন্য আমি সবার কাছে আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি। আশা করি, সম্মানিত সাংবাদিক ভাই-বোনরা এই সাময়িক অসুবিধাকে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

পরিশেষে সবার কাছে আমি দোয়া প্রার্থনা করছি যে, অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমি লড়ছি তাতে আমি যেন জয়ী হতে পারি তার জন্য ও  আমার মুক্তির অপেক্ষায় থাকা সিনেমা 'বসন্ত বিকেল' এর সফলতার জন্য। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন আপনারাও ভালো থাকুন। 

 

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)


আরও খবর

এই প্র্যাকটিসটা অন্য কোথাও আছে কিনা?’

বৃহস্পতিবার ০৭ জুলাই ২০২২

‘যে শহর কখনো ঘুমায় না’

বৃহস্পতিবার ১৬ জুন ২০২২




মোহনগঞ্জে ডিঙ্গাপোতা হাওরে নিখোঁজ জেলের মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:শনিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৮৪জন দেখেছেন
Image
নেত্রকোনা প্রতিনিধি : নেত্রকোনা জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলার ডিংগাপোতা হাওরে দমকা হাওয়ায় নৌকা ডুবে নিখোঁজ জেলে রাসেলের মরদেহ  উদ্ধার করা হয়েছে। 

শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) দুপুর পৌনে ২ টার দিকে ডিঙ্গাপোতা হাওর সংলগ্ন বদরখালী খাল থেকে নৌকাসহ তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। 

এর আগে শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) রাত আনুমানিক ৯ টার দিকে ডিঙ্গাপোতা হাওরে নিখোঁজ হয়। নিখোঁজ ব্যক্তির হচ্ছে-উপজেলার গাগলাজুর ইউনিয়নের বানিহারি গ্রামের ফজলু মিয়ার ছেলে রাসেল (৩০)।

মোহনগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রফিকুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

প্রত্যক্ষদর্শী ও গাগলাজুর ইউনিয়নের বানিহারী গ্রামের সাবেক মেম্বার বাচ্চু মিয়া জানান, শুক্রবার রাত ৯টার দিকে হঠাৎ করে দমকা হাওয়া বয়ে যায়। ওই সময়ে হাওরে থাকা জেলেরা একে অন্যের সহযোগিতায় অনেকেই রক্ষা পায়। 

কিন্তু বানিহারি গ্রামের ফজলু মিয়ার ছেলে রাসেল (৩০) একা ছোট নৌকা দিয়ে মাছ ধরছিল। বাতাস শেষ হওয়ার পর এলাকাবাসী জেলেদের সন্ধানে এগিয়ে যায়। অনেককেই পানি থেকে উদ্ধার করা হয়। তবে রাসলকে নিখোঁজ হয়।

শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) দুপুর বারোটা পর্যন্ত রাসেলের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। তার লাশ উদ্ধারের জন্য ডিঙ্গাপোতা হাওয়ারে এলাকাবাসী তল্লাশি চালাচ্ছে। দুপুর পৌনে ২ টার দিকে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে। 

ওসি আরো বলেন, এখন পর্যন্ত ডিঙ্গাপোতা হাওরে জেলে নিখোঁজের সংবাদ কেউ জানায়নি। খবর নিয়ে পুলিশ পাঠিয়েছি।

মোহনগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ছাব্বির আহমেদ আকুঞ্জি মোবাইল করে বলেন, জেলে উদ্ধারের জন্য ডুবুরী দল ডিংগাপোতা হাওরে খুঁজাখুঁজির আগেই স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে।



আরও খবর



সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে

ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জে মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ

প্রকাশিত:শনিবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৮১জন দেখেছেন
Image

জয়নাল আবেদীন, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধিঃ দৈনিক মানব কন্ঠের ঠাকুগাওয়ের পীরগঞ্জ প্রতিনিধি লাতিফুর রহমান লিমন ও প্রতিদিনের সংবাদের ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি জুনায়েদ কবির, বাংলাদেশ প্রতিদিন জেলা প্রতিনিধি আব্দুল লতিব লিটু, সহ সারাদেশে সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে পীরগঞ্জ চৌরাস্তায় শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) বঙ্গবন্ধু ম্যুরালের সামবে মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। 

পীরগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি জয়নাল আবেদিন বাবুলের সভাপতিত্বে  বক্তারা বলেন, সাংবাদিকরা নির্যাতিত নিপীড়িত মানুষের কথা বলতে গিয়ে সাংবাদিকরা প্রতিনিয়ত হামলা মামলা সহ বিভিন্ন ভাবে নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। অনতিবিলম্বে সাংবাদিকদের উপর হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে আল্টিমেটাম সহ সাংবাদিকদের পেশাগত দায়িত্ব পালনে সুরক্ষা প্রদান ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবী করেন বক্তারা। 

এসময় বক্তব্য রাখেন ঠাকুরগাঁও জেলা প্রেস ক্লাব সভাপতি মনসুর আলী, সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান মিঠু, বাংলাদেশের কমিউনিষ্ট পার্টির জেলা সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু সায়েম, ঠাকুরগাঁও টিভি জার্নালিষ্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি রফিকুল ইসলাম রোহান, এটিএন টেলিভিশন জেলা প্রতিনিধি ফিরোজ আমিন সরকার,  রাণীশংকৈল প্রেসক্লাবের সভাপতি মোবারক আলী, সাধারণ সম্পাদক বিল্পব, হরিপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান,  প্রথম আলো প্রতিনিধি কাজী নুরুল ইসলাম, সাবেক সভাপতি ইত্তেফাক প্রতিনিধি মেহের এলাহী, সিনিয়র সাংবাদিক দীপেন রায়, প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি মামুনুর রশীদ, সমকাল প্রতিনিধি মোকাদ্দেস হায়াত মিলন, জনকন্ঠ প্রতিনিধি মোশাররফ হোসেন, দৈনিক বর্তমান পত্রিকার প্রতিনিধি এ এইচ লিটন, রাণীশংকৈল কালের কন্ঠ প্রতিনিধি সফিকুল ইসলাম শিল্পি, বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা যায়যায়দিন প্রতিনিধি মশিউর রহমান, মানবাধিকারকর্মী রোজী আকতার, ভোরের কাগজ প্রতিনিধি দেলওয়ার হোসেন দুলাল সরকার, আজকের পত্রিকার প্রতিনিধি নূর নবী, খোলা কাগজ প্রতিনিধি বাদল হোসেন,  আহত সাংবাদিক লিমনের মা লাকী বেগম, উপজেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি শুভ শর্মা সাংবাদিক রোজি প্রমূখ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন পীরগঞ্জ প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিষ্ণুপদ রায়। সমাবেশে ঠাকুরগাঁও জেলা সহ ৫ উপজেলার প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের বিভিন্ন সড়ক ঘুড়ে প্রেসক্লাবে এসে শেষ হয়।


আরও খবর



বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন

কোটালিপাড়া শাখা কমিটি অনুমোদন কাজী অমিত মাহমুদ সভাপতি মাহবুব সুলতান সাধারণ সম্পাদক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৫০২জন দেখেছেন
Image

 কোটালিপাড়া, গোপালগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

গোপালগঞ্জের  কোটালীপাড়ায়  মানবাধিকার কমিশন কোটালিপাড়া শাখার কমিটি গঠন করা হয়েছে।

গত বুধবার বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের পরিচালক এ্যাডভোকেট ফারাহ দিবা জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মুরাদুল ইসলামের মাধ্যমে সাক্ষরিত কমিটির অনুমোদন পত্র কোটালিপাড়া শাখা কমিটির কাছে হস্তান্তর করেছেন।

কোটালিপাড়া উপজেলা শাখায়২৬ সদস্যের কার্যনির্বাহী কমিটির মধ্যে মানবতাবাদী কাজী অমিত মাহমুদ কে সভাপতি ও সাংবাদিক এফ এম মাহাবুব সুলতান কে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন  নির্বাহী সভাপতি সাংবাদিক সুবল চক্রবর্তী সহ সভাপতি মনিন্দ্র মাস্টার,সহসভাপতি প্রমথ সরকার  যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কমল দাস, সাংগঠনিক সম্পাদক জেমস বাড়ৈ প্রচার সম্পাদক রনি আহমেদ ক্রীড়া সম্পাদক প্রভাষক  চয়ন ,বিশ্বাস, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক রেবুয়াল হোসেন, মহিলা বিযয়ক সম্পাদীকা রওশন জাহান,নির্বাহী সদস্য সাবীর বিন সুলতান প্রমুখ


আরও খবর



কবি নজরুলের সমাধিতে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৯২জন দেখেছেন
Image

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৬তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তার সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছে সমাজের সর্বস্তরের মানুষ ও বিভিন্ন সংগঠন।

আজ শনিবার (২৭ আগস্ট) সকাল থেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অবস্থিত কবির সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান তারা।

এদিন সকালে বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এ ছাড়া বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাতে দেখা গেছে।

এদিকে কবির মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে দেশের শিল্পী-সাহিত্যিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো। এরমধ্যে রয়েছে- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদসংলগ্ন কবির সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ফাতেহাপাঠ, দোয়া মাহফিল, আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে একটি শোভাযাত্রা হওয়ার কথা রয়েছে।

১৯৭৬ সালের ২৭ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাকে সমাহিত করা হয়।


আরও খবর

২২ দিন ইলিশ ধরা-বিক্রি নিষিদ্ধ

বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২




ঢাক-ঢোল জারি সারি গান ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচের ফাইনাল অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:রবিবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৬৬জন দেখেছেন
Image
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: ঢাক-ঢোল ও জারি সারি গানের তালে আবহমান গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহি ধারণ করে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে বড়াল নদীতে ড. মজহারুল ইসলাম স্মৃতি নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা প্রতিযোগিতা ২০২২ এর ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (১০ সেপ্টেম্বর) বিকেল উপজেলার বাঘাবাড়ীর বড়াল নদীতে অনুষ্ঠিত এ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে চর-আঙ্গারুর শাপলা এক্সপ্রেস। এ খেলায় রানার্সআপ হয়েছে বনগ্রামের নিউ উড়ন্ত বলাকা। 

গত ১৯ আগস্ট শুরু হওয়া ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ ফাইনাল প্রতিযোগিতার মাধ্যমে এ খেলা শেষ হয়েছে।  নদীর দুই পাড়ে লাখো মানুষের নিখাদ বিনোদনের খোরাক, বাঙালি সংস্কৃতির আদি ঐতিহ্য এ নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে উত্তরবঙ্গ ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়ন। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিরাজগঞ্জ- ৬ (শাহজাদপুর) আসনের সংসদ সদস্য প্রফেসর মেরিনা জাহান কবিতা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ তরিকুল ইসলাম, সাবেক সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চয়ন ইসলাম, কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. সাজ্জাদ হায়দার লিটন, পৌরসভার মেয়র মনির আক্তার খান তরু লোদী, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য সুমগ্ন করিম, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মুস্তাক আহমেদ প্রমূখ।

ঐতিহাসিক ফাইনাল নৌকা বাইচ দেখতে নদীর তীরে শত শত ছোট বড় নৌকায় সিরাজগঞ্জ, পাবনা ও নাটোরের হাজার হাজার নারী পুরুষের সমাগম ঘটে। এসময় বাঘাবাড়ি ব্রীজের উপর দাঁড়িয়ে হাজারো মানুষকে এ ফাইনাল নৌকা 
 বাইচ উপভোগ করতে দেখা গেছে। 

কেউ কেউ নিজস্ব নৌকায় নানা রকম সাজে সজ্জিত হয়ে নেচে গেয়ে উৎসবকে আরো রঙিন করে তোলেন। ঐতিহ্যবাহী এই নৌকা বাইচের সময় বাইচালরা ঢাক, ঢোল ও করতালের বাজনা আর জারি-সারি গানের তালে তালে বৈঠা চালিয়ে উপস্থিত দর্শকদের আনন্দে মাতিয়ে তোলেন।

নৌকা বাইচের আয়োজক ও উত্তরবঙ্গ ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি শাহজাহান সিরাজ বলেন, দীর্ঘ ১০ বছর পর বাঘাবাড়ী বড়াল নদীতে নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতার ফাইনাল খেলা শেষ হয়েছে। বাইচের প্রথম দিনে ১০ হাজারেরও বেশি মানুষ নৌকা বাইচ উপভোগ করেন। সিরাজগঞ্জ- পাবনা জেলার প্রায় ২৪টি নৌকা এ বাইচে
অংশ গ্রহণ করেছেন। লীগ ভিত্তিক এ প্রতিযোগিতার ফাইনালে মোটরসাইকেল, টেলিভিশন ও ফ্রিজ পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

ডিজিটাল যুগে আধুনিকতার ছোঁয়ায় গ্রাম বাংলার অনেক ঐতিহ্যই যখন হারিয়ে যেতে বসেছে, সংস্কৃতির সেই ক্রান্তিকালে বাঙালির হাজার বছরের ঐতিহ্যকে টিকিয়ে রাখতে নৌকা বাইচের আয়োজন সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে।

আরও খবর