Logo
আজঃ সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
শিরোনাম
বীরত্ব’ সিনেমা

যৌনপল্লীতে নায়িকা নিপুণ আক্তার !

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
Image

দেশের আলোচিত নায়িকা নিপুণ আক্তার। দীর্ঘদিন পর ‘বীরত্ব’ সিনেমা দিয়ে প্রেক্ষাগৃহে আসছেন তিনি। ১৬ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাচ্ছে সিনেমাটি। এতে যৌনকর্মীর চরিত্রে দেখা যাবে তাকে। শুটিংয়ের জন্য টানা পাঁচদিন রাজবাড়ির যৌনপল্লীতে থেকেছেন তিনি। এই পাঁচদিন নানা অভিজ্ঞতার মুখে পড়েছেন এই অভিনেত্রী। সেখানকার মানুষদের জীবন-যাপন দেখেছেন অতি কাছ থেকে।

নিপুণ বলেন, এই সিনেমায় আমাকে একজন যৌনকর্মীর চরিত্রে দেখা যাবে। যে জীবনে সব হারিয়েও বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখে। আমার বিশ্বাস আমার চরিত্রটি অনেক অসহায় নিপীড়িত মেয়েদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে সহায়তা করবে। তাদের আশা জাগাবে, তারা নতুন করে বাঁচতে চাইবে।’

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী বললেন, ‘নিষিদ্ধ পল্লীতে কাজ করা এটা আসলে একটা অন্যরকম অভিজ্ঞতা। সেটা দেখার জন্য আপনাদের হলে আসতে হবে।’

সাম্প্রতিক পরাণ ও হাওয়া' এর মাধ্যমে দর্শকরা হলে আসতে শুরু করেছেন। নতুন করে সিনেমা পুনর্জীবিত হয়েছে। এই পালে হাওয়া দেবে বীরত্ব। নিপুণ বলেন, পরাণ ও হাওয়া দেখে দেখে আপনারা যে স্বস্তি পেয়েছেন, বীরত্ব সিনেমাটা দেখেও আপনারা সেই স্বস্তিট পাবেন।’

ছবিটিতে  নিপুণের বিপরীতে একজন দালালের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ছোটপর্দার অভিনেতা ও অভিনয়শিল্পী সংঘের সভাপতি আহসান হাবীব নাসিম।

সাইদুল ইসলাম রানার প্রথম সিনেমা ‘বীরত্ব’তে নায়ক-নায়িকার ভূমিকায় আছেন মামনুন হাসান ইমন ও নবাগত নিশাত নাওয়ার সালওয়া। তাদের দুজনকেই দেখা যাবে চিকিৎসকের ভূমিকায়। এছাড়া খল চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইন্তেখাব দিনার। পুলিশ অফিসারের চরিত্রে আছেন শতাব্দী ওয়াদুদ। আরও আছেন বড়দা মিঠু ও জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়সহ অনেকে।


আরও খবর



জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাজাপুরে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৮০জন দেখেছেন
Image
ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠির রাজাপুরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

শনিবার (২৭আগষ্ট) সকাল সাড়ে ১০টায় রাজাপুর উপজেলার গালুয়া ইউনিয়নের নিজ গালুয়া গ্রামে চুয়াডাঙ্গার নব নিযুক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল-মামুনের সহযোগীতায় কালো ব্যাজ ধারণ করে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। মাস্টার জহির উদ্দিন মিয়া স্মৃতি পাঠাগার ও এম এম যুব কল্যাণ সংঘ তাদের নিজস্ব কার্যালয়ে এ আয়োজন করেন।

আলোচনা সভায় মাস্টার জহির উদ্দিন মিয়া স্মৃতি পাঠাগার এর প্রতিষ্ঠাতা অবসরপ্রাপ্ত ওসি মনোয়ার হোসেন'র সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শাহ্ জাহান মোল্লা, অবসর প্রাপ্ত যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আল আমিন বাকলাই, এম এম যুব কল্যাণ সংঘের সভাপতি মো. আব্দুল্লাহ আল-আমিন, সহ সভাপতি এস এম মাসুম বিল্লাহ প্রমুখ।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, রাজাপুর থানার ওসি তদন্ত মো. গোলাম মোস্তফা, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক বাপ্পি মিয়া সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

সংগঠনের পক্ষ থেকে উপস্থিতিদের মাঝে টি-শার্ট ও দোয়া শেষে তাবারক বিতরণ করা হয়েছে।


আরও খবর

বিষখালীর হঠাৎ ভাঙনে ছয় দোকান বিলীন

মঙ্গলবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২




এশিয়া কাপ ২০২২

বাংলাদেশের আফগান চ্যালেঞ্জ আজ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৯৫জন দেখেছেন
Image

আইসিসির টি-২০ র‍্যাংকিংয়ের অবস্থান নিশ্চিতভাবেই এই ফরম্যাটে দুই দল সম্পর্কে হয়তো সঠিক বার্তা দিতে পারছে না। সংক্ষিপ্ত সংস্করণে টাইগারদের চেয়ে পরিণত দল আফগানিস্তান। এই তথ্যে বিভ্রান্তির সুযোগ কম।

চলমান এশিয়া কাপে দারুণ ফর্মে আছে মোহাম্মদ নবির দল। শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে দেওয়া আফগানদের বিপক্ষেই আজ বাংলাদেশের এশিয়া কাপ মিশন শুরু হবে, যে ম্যাচে নবির দলটার সঙ্গেই থাকছে ‘ফেভারিটের’ তকমা। শারজা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

তবে উড়তে থাকা আফগানদের ওপর হামলে পড়ার উপলক্ষ্য আছে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের সামনে। কারণ আজ মাঠে নামতেই দেশের তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে টি-২০তে ম্যাচ খেলার ‘সেঞ্চুরি’ পূর্ণ করবেন সাকিব আল হাসান। অধিনায়কের শততম ম্যাচটা জয়ের আবিরে রাঙাতে প্রয়োজন সম্মিলিত প্রয়াস। জ্বলে উঠতে হবে দল হিসেবে।

আজ আফগান পরীক্ষায় টাইগারদের পক্ষে নেই পরিসংখ্যান, পারিপার্শ্বিকতা। এটুকু বিশ্বাস অবশ্য আছে যে, আফগানদের মাটিতে নামানোর সামর্থ্য আছে টিম বাংলাদেশের। আগের আট বারের সাক্ষাতে তাদের কাছে পাঁচ বার হেরেছে বাংলাদেশ, জিতেছে তিন বার। আবার শেষ পাঁচ ম্যাচে মাত্র একটি জয় চিন্তার কারণ বটে। অধিনায়ক সাকিবের অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা দলের বড় সাহস। ক্যারিয়ারের শততম ম্যাচে বাঁহাতি এই অলরাউন্ডারের কাছেও ব্যবধান গড়া পারফরম্যান্স চায় বাংলাদেশ। সঙ্গে এই ফরম্যাটের অভিজ্ঞ বোলার মুস্তাফিজুর রহমানের জ্বলে ওঠা প্রয়োজন। বিজয়, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহ, শেখ মেহেদীরা পারফর্ম করতে পারলে আফগানদের হারানো সম্ভব।

দুরন্ত ছন্দে থাকা আফগানিস্তান দলের মূল শক্তি বোলিং। স্পিনার রশিদ খান, মুজিব, নবিদের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে ফজল হক ফারুকির ক্ষুরধার পেস বোলিং। সামনে তাই কঠিন চ্যালেঞ্জ, যা উতরে যেতে হবে সাহসী ব্যাটিং দিয়ে। সাকিব-মুস্তাফিজ-মেহেদীকে নিয়ে বাংলাদেশের বোলিংটাও নেহাত খারাপ নয়। ভারতীয় ধারাভাষ্যকার সঞ্জয় মাঞ্জেরকারের মতে, আজকের ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ করে দেবেন ব্যাটসম্যানরা। যে দলের ব্যাটিং ভালো হবে, তারাই জয়ের হাসি হাসবে।

এখন দেখার বিষয় সাকিব, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহর ৩১৮ ম্যাচের অভিজ্ঞতা বাংলাদেশকে স্বস্তি এনে দিতে পারে কি না।



আরও খবর

এশিয়া কাপ শেষে দেশে ফিরলো টাইগাররা

শনিবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২




স্ত্রীকে গ্যাস ট্যাবলেট খাইয়ে হত্যা, শ্বশুর ও শ্বাশুড়ি আটক

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ২০জন দেখেছেন
Image
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার চকঝুঝুরি গ্রামে নাসিমা  খাতুন (২৩) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে তার স্বামী সুমন আলী পলাতক রয়েছে।

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকালে নিহতের স্বামীর বাড়ির পাশের পুকুর পাড় থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত নাসিমা চক ঝুরঝুরি গ্রামের সরোয়ারের ছেলে সুমনের স্ত্রী।  

স্থানীয়রা জানান, স্বামী সুমনসহ পরিবারের লোকজন নাসিমা খাতুনকে প্রতিনিয়ত নির্যাতন করত। শুক্রবার রাতে তাকে বেধড়ক পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে স্বামী সুমন। পিটিয়ে আহত করার পর জোর করে গ্যাস ট্যাবলেট খাইয়ে পুকুর পাড়ে ফেলে আসে নিহতের স্বামী ও শশুর। পরে নাসিমার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে তাদের কাছে ঘটনার বর্ননা দেয়ার কিছুক্ষন পরেই নাসিমার মৃত্যু হয়।

তাড়াশ থানার (ওসি) তদন্ত নুরে আলম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

মৃত্যুর আগে নিহত নাসিমা উপস্থিত লোকজনের কাছে স্বামী ও শশুরের নির্যাতন ও গ্যাস ট্যাবলেট খাওয়ানোর বিষয়ে ভিডিও  সাক্ষাতকার দিয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার শ্বশুর ও শ্বাশুড়িকে থানায় আনা হয়েছে। তার স্বামী সুমন পলাতক রয়েছে।

আরও খবর



দুর্গাপুরে বিরিশিরি কালচারাল একাডেমিতে জাতীয় কবির প্রয়াণ দিবস পালন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৯৮জন দেখেছেন
Image
নেত্রকোনা প্রতিনিধি : নেত্রকোনার দুর্গাপুরে বিরিশিরি ক্ষুদ্র-নৃগোষ্ঠীর কালচারাল একাডেমির আয়োজনে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৬তম প্রয়াণ দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে শনিবার (২৭ আগস্ট) বিকালে কালচারাল একাডেমির হলরুমে আলোচনা সভা, কবিতা আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।

আলোচনা সভায় ভার্চুয়ালি সভাপতিত্ব করেন কালচারাল একাডেমির পরিচালক গীতিকার সুজন হাজং। একাডেমির নৃত্য শিক্ষক মালা মার্থা আরেংয়ের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নেত্রকোনা-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক মো: কামরুজ্জামান, কবি নজরুল ইনস্টিটিউটের প্রাক্তন নির্বাহী পরিচালক কবি মানিক মোহাম্মদ রাজ্জাক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগীত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও সংগীত শিল্পী ড. প্রিয়াংকা গোপ, নেত্রকোণার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ মনির হোসেন, দুর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ রাজীব উল আহসান, প্রাবন্ধিক ও ছড়াকার সঞ্জয় সরকার।

বক্তারা বলেন, কাজী নজরুল ইসলাম আমাদের জাতীয় কবি। বাংলা সাহিত্যে তাঁর অবদান অপরিসীম। বাংলা সাহিত্যে তাঁর সব ক্ষেত্রে বিচরণ ছিল মুক্তবিহঙ্গের মতই। তিনি আমাদের অহংকার ও তারুণ্যের কবি, প্রেরণার কবি, উদ্দীপনার কবি। দেশপ্রেম, মহত্ব, মানুষত্ববোধ, মানুষের মধ্যে প্রেম-ভালোবাসা জাগ্রত করার উৎসাহ তাঁর লেখনিতে পাওয়া গেছে।

আলোচনা শেষে কালচারাল একাডেমির শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

আরও খবর



রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ থামান: শেখ হাসিনা

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ২৫জন দেখেছেন
Image

বৈশ্বিক শান্তির জন্য ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে গোটা মানবজাতিকে কষ্ট থেকে মুক্তি দিতে সব ধরনের অস্ত্র প্রতিযোগিতা, যুদ্ধ-সংঘাত এবং নিষেধাজ্ঞা বন্ধ করারও আহ্বান জানান তিনি।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় বিকেলে (বাংলাদেশ সময় শুক্রবার দিবাগত মধ্যরাতে) নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদরদপ্তরে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। বরাবরের মতো এবারও তিনি বাংলায় ভাষণ দেন। এটি জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে শেখ হাসিনার ১৯তম ভাষণ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমরা ইউক্রেন ও রাশিয়ার সংঘাতের অবসান চাই। নিষেধাজ্ঞা, পাল্টা-নিষেধাজ্ঞার মাধ্যমে একটি দেশকে শাস্তি দিতে গিয়ে নারী, শিশুসহ ও গোটা মানবজাতিকেই শাস্তি দেওয়া হয়। এর প্রভাব কেবল একটি দেশেই সীমাবদ্ধ থাকে না বরং সকল মানুষের জীবন-জীবিকা মহাসঙ্কটে পতিত হয়। মানবাধিকার লঙ্ঘিত হয়। খাদ্য, বাসস্থান, চিকিৎসা শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হয়। বিশেষ করে, শিশুরাই বেশি কষ্ট ভোগ করে। তাদের ভবিষ্যৎ অন্ধকারে হারিয়ে যায়। বিশ্ব বিবেকের কাছে আমার আবেদন, অস্ত্র প্রতিযোগিতা, যুদ্ধ, স্যাংশন বন্ধ করুন। শিশুকে খাদ্য, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা ও নিরাপত্তা দিন। শান্তি প্রতিষ্ঠা করুন।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা দেখতে চাই, একটি শান্তিপূর্ণ বিশ্ব- যেখানে থাকবে বর্ধিত সহযোগিতা, সংহতি, পারস্পরিক সমৃদ্ধি এবং ঐকবদ্ধ প্রচেষ্টা। আমাদের একটি মাত্র পৃথিবী এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে এই গ্রহকে আরও সুন্দর করে রেখে যাওয়া আমাদের দায়িত্ব।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ এবং ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকদের হাতে সপরিবারে বাবা-মাকে হারানোর কথা স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কাজেই যুদ্ধের ভয়াবহতা, হত্যা-ক্যু-সংঘাতে মানুষের যে কষ্ট-দুঃখ-দুর্দশা হয়, ভুক্তভোগী হিসেবে আমি তা উপলদ্ধি করতে পারি। তাই যুদ্ধ চাই না, শান্তি চাই, মানবকল্যাণ চাই। মানুষের অর্থনৈতিক উন্নতি চাই।

শেখ হাসিনা বলেন, আগামী প্রজন্মের জন্য শান্তিময় বিশ্ব, উন্নত-সমৃদ্ধ জীবন নিশ্চিত করতে চাই। আমার আকুল আবেদন, যুদ্ধ, অস্ত্র প্রতিযোগিতা বন্ধ করুন। সমুন্নত হোক মানবিক মূল্যবোধ। আসুন, সবাইকে এক সঙ্গে নিয়ে হাতে হাত মিলিয়ে আমরা একটি উত্তম ভবিষ্যৎ তৈরির পথে এগিয়ে যাই।

আলাপ আলোচনাই বিরোধ-সংঘাত মেটানোর সর্বোত্তম উপায় উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যুদ্ধ বা অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা, পাল্টা-নিষেধাজ্ঞার মত বৈরীপন্থা কখনও কোন জাতির মঙ্গল বয়ে আনতে পারে না। পারস্পরিক আলাপ-আলোচনাই সঙ্কট ও বিরোধ নিষ্পত্তির সর্বোত্তম উপায়।

সংকট উত্তরণে ‘গ্লোবাল ক্রাইসিস রেসপন্স গ্রুপ’ গঠন করায় জাতিসংঘের মহাসচিবকে ধন্যবাদ জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, এই গ্রুপের একজন চ্যাম্পিয়ন হিসেবে, আমি বর্তমান পরিস্থিতির গুরুত্ব ও সঙ্কটের গভীরতার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ একটি বৈশ্বিক সমাধান নিরূপণ করতে অন্যান্য বিশ্ব নেতাদের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছি।

সবার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বাংলাদেশের এই নীতির কথা তুলে ধরে সরকার প্রধান বলেন, বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রণীত পররাষ্ট্রনীতির মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে- "সকলের সাথে বন্ধুত্ব, কারও সাথে বৈরীতা নয়"। বাংলাদেশ জন্মলগ্ন থেকেই এই প্রতিপাদ্য-উদ্ভূত জোটনিরপেক্ষ নীতি অনুসরণ করে আসছে।

এ বছরের সাধারণ বিতর্কের প্রতিপাদ্য-"একটি সঙ্কটপূর্ণ সন্ধিক্ষণ: আন্তঃসংযুক্ত প্রতিকূলতাসমূহের রূপান্তরমূলক সমাধান"।

শেখ হাসিনা বলেন, এবারের প্রতিপাদ্যটি এ সকল প্রতিকূলতা মোকাবিলায় এবং আমাদের অর্থনীতিকে পুনরুজ্জীবিত করে শান্তিপূর্ণ ও টেকসই পৃথিবী গড়ে তোলার উপায় খুঁজে বের করার জন্য সকলের ঐক্যবদ্ধ আকাক্সক্ষার প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। আর এই লক্ষ্য অর্জনের জন্য আমাদের এখনই সম্মিলিত উদ্যোগ নিতে হবে।


আরও খবর

২২ দিন ইলিশ ধরা-বিক্রি নিষিদ্ধ

বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

এসএসসির প্রথম দিনের পরীক্ষা শেষ হলো

বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২