Logo
আজঃ রবিবার ১৯ মে ২০২৪
শিরোনাম

বাংলাদেশের জ্বালানি খাতে ১৫ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে সৌদি আরব

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ মে ২০২৪ | ৪৫৬জন দেখেছেন

Image

বাংলাদেশের জ্বালানি খাতে ১৪০ কোটি ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৫ হাজার ৩৪৮ কোটি টাকা) বিনিয়োগ করছে সৌদি আরব। ইতিমধ্যে দুই দেশের সরকারি পর্যায়ে এ সংক্রান্ত চুক্তিও সই হয়েছে।  সৌদির সরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (আইডিবি) বিশেষ প্রকল্প ইসলামিক ট্রেড ফিন্যান্স কর্পোরেশনের (আইটিএফসি) মাধ্যমে প্রদান করা হবে বিনিয়োগের অর্থ। 

সম্প্রতি যে চুক্তিটি স্বাক্ষরিত হয়েছে তাতে সৌদি সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে আইটিএফসি এবং বাংলাদেশ সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে দেশের জ্বালানি তেল আমদানি ও বিপনন বিষয়ক কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের (বিপিসি) কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা এসপিএ জানিয়েছে, যে চুক্তিটি সই হয়েছে তার অর্থ দীর্ঘমেয়াদি বাংলাদেশের জ্বালানি খাতের উন্নয়ন সংক্রান্ত বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগ করা হবে। এ সম্পর্কে বিস্তারিত আর কিছু বলা হয়নি।

প্রতিবেদনে আরও উল্লেখ করা হয়- এই চুক্তি দুই দেশের মধ্যকার মিত্রতা ও দীর্ঘকালীন অংশীদারিত্বের একটি সাক্ষ্য। আশা করা হচ্ছে, দক্ষিণ এশিয়ার দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতি নামে পরিচিত একটি দেশের জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে এই চুক্তির মধ্যে দিয়ে।


আরও খবর



তাহিরপুরে জনসচেতনতামূলক গণনাটক প্রদর্শন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৬ মে ২০২৪ | ৩৯জন দেখেছেন

Image


আবু জাহান তালুকদার, সুনামগঞ্জ:


বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নে একটি গণনাটক প্রদর্শন করেছে Women-Led Climate Resilience (WLCR) Program এফআইভিডিবি।


মনোমুগ্ধকর জনসচেতনতা মূলক নাটক দেখতে ভীর করে নানা স্তরের প্রায় চার শতাধিক মানুষ। বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ, কিভাবে দুর্যোগের পরবর্তীকালিন সময়ে প্রস্তুতি নেওয়া হয় আর কিভাবে প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতনতা করা যায়, এই সব বিষয় নিয়ে গণনাটক প্রদর্শন করা হয় দিন ব্যাপী।


সোমবার (৬ মে ) ২টায় উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের দলইরগাঁও গ্রামে নাটকটি অনুষ্ঠিত হয়।


জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক খোরশেদ আলমের সভাপতিত্বে ও এফআইভিডিবি-WLCR project এর শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের ইউনিয়ন মবিলাইজার জিয়াউল হক এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, স্থানীয় ইউপি সদস্য আবুল কালাম, ইউনিয়ন মবিলাইজার ফয়সল আহমদ, কমিউনিটি ভলান্টিয়ার নাঈমা আক্তার প্রমুখ।


এই প্রতিবেদককে স্থানীয় কয়েকজন লোক বলেন. অনেক সময় লোভে পড়ে মেয়েকে অল্প বয়সে বিয়ে দেয় যার ফল হয় ভয়াবহ। বিশেষ করে দুর্যোগের পর বাল্যবিবাহ টা বেশি হয়।

সন্তান সম্ভবা মায়েদের ও বিভিন্ন সময়ে সঠিক যত্ন হয় না। আশা করি, এই নাটকটি বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ তথা মাতৃ ও শিশু মৃত্যু প্রতিরোধ করতে বিরাট জনসচেতনতা তৈরি করবে।


আরও খবর



তৃতীয় বিয়ের মাহেন্দ্রক্ষণে সুখবর পেলেন শাকিব খান

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ মে ২০২৪ | ৬৭জন দেখেছেন

Image


বিনোদন ডেস্কঃ


ক্রিয়েটিভ কালচার ক্যাটাগরিতে বলিউডের শাহরুখ খান, সঞ্জয় দত্তসহ অনেকেই আরব আমিরাতের কালচারাল মিনিস্ট্রি থেকে গোল্ডেন ভিসা পেয়েছেন।

বাংলাদেশি প্রথম শিল্পী হিসেবে এই ক্যাটাগরিতে গোল্ডেন ভিসা পেলেন চিত্রনায়ক শাকিব খান।

সোশ্যালে সেই রিকমেন্ডেশন লেটার শেয়ার করে এমনটাই জানালেন চলচ্চিত্র নির্মাতা অনন্য মামুন।

এক ফেসবুক পোস্টে তিনি লিখেন, প্রথম বারের মতো ক্রিয়েটিভ কালচার ক্যাটাগরিতে আরব আমিরাতের কালচারাল মিনিস্ট্রি থেকে গোল্ডেন ভিসার রিকমেন্ডেশন পেল মেগা সুপারস্টার শাকিব খান।

সেই সঙ্গে তিনি আরও লিখেন, আরব আমিরাত সাধারণত কিছু বিশেষ ক্যাটাগরিতে গোল্ডেন ভিসা দিয়ে থাকে। ব্যবসা ও এ ক্যাটাগরি জব ছাড়া শুধুমাত্র সরকারিভাবে রিকমেন্ডেশন দিয়ে ট্যালেন্টেড পেওনির হিসাবে ভিন্ন দুইটা ক্যাটাগরিতে তারা সম্পূর্ন বিনা খরচে সম্মান সরূপ গোল্ডেন ভিসা দিয়ে থাকে।


বিভিন্ন সময় বলিউডের অনেক সেলিব্রিটিকে ক্রিয়েটিভ কালচারাল ক্যাটাগরিতে গোল্ডেন ভিসা দেওয়ার খবর গণমাধ্যমে দেখা যায়। বলিউড বাদশা শাহরুখ খান, সন্জয় দত্তসহ অনেক বড় তারকারা ইতিমধ্যেই এই ক্যাটাগরিতে গোল্ডেন ভিসা পেয়েছেন।

এবার সেই একই ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশ থেকে প্রথমবারের মতো কালচারাল মিনিস্ট্রি থেকে রিকমেন্ডেশন লেটার পেলেন বাংলাদেশের একমাত্র মেগা সুপারস্টার শাকিব খান।

 


আরও খবর



শিঘ্রই আসছে জিমের ‘মেঘবালিকা’

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৩ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ মে ২০২৪ | ৬১জন দেখেছেন

Image



সদরুল আইনঃ


এ সময়ের দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী মাফতুহা জান্নাত জিম। মডেলিংয়ের মাধ্যমে শোবিজে নাম লেখিয়েছেন তিনি।


 জিম বেছে বেছে ছোট পর্দায় নিয়মিত কাজ করছেন। গেল ঈদে চ্যানেল আইয়ে প্রচারের পর সম্প্রতি ইউটিউবে অবমুক্ত হয়েছে এই অভিনেত্রীর ‘বুনোফুল’ নামের একক নাটক।


 এতে তার সহশিল্পী মনোজ প্রামাণিক। এটি পরিচালনা করেছেন রুবেল আনুশ।


এদিকে শিগগিরই প্রচারে আসবে জিমের ‘মেঘবালিকা’ নামের নতুন একটি নাটক। সিফাত হোসেনর গল্পে নাটকটি পরিচালনা করেছেন বাপ্পি খান। 


এতে জিমের বিপরীতে আছেন প্রান্তর দস্তিদার। আরও আছেন মনিরা মিঠু প্রমুখ।


নাটকটিতে নীলা চরিত্রে অভিনয় করেছেন জিম। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নীলা নীল শাড়ি পড়তে পছন্দ করে। নীল শাড়ি, নীল কাচের চুড়ি তার বিশেষত্ব। নীলা ছোট বেলা থেকেই পাশের বাসার ছেলেটিকে পছন্দ করে। বলা যায় তার ক্রাশ। গল্পে চমক আছে। আশা করছি, নাটকটি প্রচারে এলে সবার ভালো লাগবে।


জিম অভিনীত আরও বেশ কয়েকটি নাটক প্রচারের অপেক্ষায় আছে। সম্প্রতি এই অভিনেত্রী একটি বিজ্ঞাপন চিত্রের কাজ শেষ করেছেন। চলতি মাসেই এটি প্রচারে আসার কথা রয়েছে।


আরও খবর



স্টুডেন্ট ভিসায় ফের পরিবর্তনের ঘোষণা অস্ট্রেলিয়ার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ মে ২০২৪ | ৩৬জন দেখেছেন

Image


ডেস্ক রিপোর্ট:


স্টুডেন্ট ভিসা পাওয়ার ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন সঞ্চয় দেখাতে হয়। কিন্তু এই সর্বনিম্ন সঞ্চয়ের পরিমাণ আরো বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। 



তাছাড়া অবৈধ পন্থায় শিক্ষার্থী ভর্তির বিষয়ে দেশটির বেশ কিছু কলেজকে সতর্ক করেছে কর্তৃপক্ষ।


শুক্রবার থেকে আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের অন্তত ১৯ হাজার ৫৭৬ মার্কিন ডলার বা ২৯ হাজার ৭১০ অস্ট্রেলিয়ান ডলার সঞ্চয়ের প্রমাণ দেখাতে হবে, এটি গত সাত মাসের মধ্যে দ্বিতীয় বৃদ্ধি। 


 অক্টোবরে এই সঞ্চয়ের পরিমাণ ২১ হাজার ৪১ অস্ট্রেলিয়ান ডলার থেকে বাড়িয়ে ২৪ হাজার ৫০৫ ডলার করা হয়েছিল।



করোনা মহামারির বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ার পর বহু শিক্ষার্থী অস্ট্রেলিয়ায় চলে যায়। এতে দেশটিতে চাপ তৈরি হয়েছে। তাই সম্প্রতি অভিবাসী নীতি কঠোর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।


গত মার্চে ইংরেজি ভাষার দক্ষতার ক্ষেত্রেও পরিবর্তন আনা হয়েছে। তাছাড়া শিক্ষার্থীরা যাতে দীর্ঘদিন না থাকতে পারে সে ব্যাপারে পদক্ষেপ নিচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্লেয়ার ও’নিল ৩৪টি প্রতিষ্ঠানকে সতর্ক করে চিঠি দিয়েছেন।


আরও খবর



ফালুকান্ডে বিএনপিতে ঝড়,আলোচনা সমালোচনা

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ মে ২০২৪ | ৫১জন দেখেছেন

Image

ডেস্ক নিউজ:


পর্দার আড়ালে ছিলেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরে মূলধারার রাজনীতি থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছেন। বিদেশে পলাতক জীবনযাপন করছেন। সেখানে বসেই বাংলাদেশের ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনা করছেন।


 সরকারের সাথেও নানা রকম ভাবে ঘনিষ্ঠ হওয়ার চেষ্টা করছিলেন। সেই মোসাদ্দেক আলী ফালুকে নিয়েই হঠাৎ করে আলোচনা জমে উঠেছে। শুধু বিএনপির মধ্যে নয়, রাজনৈতিক অঙ্গনে মোসাদ্দেক আলী ফালুকে নিয়ে এখন আলোচনা জমজমাট।


এর কারণ হল সাম্প্রতিক সময়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সৌদি আরবে মোসাদ্দেক আলী ফালুর সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেছেন। যদিও মোসাদ্দেক আলী ফালুর ঘনিষ্ঠরা এবং বিএনপির পক্ষ থেকে এটিকে রুদ্ধদ্বার বৈঠক হিসেবে অস্বীকার করা হয়েছে।


 তারা বলেছেন যে, যেহেতু মোসাদ্দেক আলী ফালু সৌদি আরবে অবস্থান করছেন এবং বিএনপির মহাসচিব সেখানে গেছেন, তারা দীর্ঘদিনের পরিচিত, ঘনিষ্ঠ- এ কারণে তার বাসায় আপ্যায়ন করা হয়েছে। এ বিষয়টির সঙ্গে কোন রাজনীতি নেই।


ফালুর ঘনিষ্ঠ একজন আত্মীয়  বলেছেন যে শুধু মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নন, বিএনপির যেকোন নেতা গেলেই ফালু তাদেরকে আপ্যায়িত করেন পুরনো সম্পর্কের জেরে। এর সঙ্গে কোন রাজনীতির সম্পর্ক নেই। মোসাদ্দেক আলী ফালু বর্তমানে কোন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত নন এবং তিনি প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ভাবে রাজনীতি করেন না।


কিন্তু মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এমন সময় ফালুর সঙ্গে দেখা করেছেন, যখন বিএনপিতে অনেকগুলো ইস্যু নিয়ে টালমাটাল অবস্থা বিরাজ করছে। মোসাদ্দেক আলী ফালু খালেদাপন্থী বিএনপি অংশের অন্যতম প্রধান নেতা হিসেবে বিবেচিত হন এবং বেগম জিয়ার সঙ্গে তার সম্পর্কের কারণেই তাকে তারেক জিয়া কোনঠাসা করেছেন- এমন বক্তব্য বিএনপিতে ব্যাপকভাবে প্রচলিত আছে।



 আর এরকম পরিস্থিতির কারণে বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার কারণে যারা বিএনপিতে এখন কোনঠাসা তারা এখন মোসাদ্দেক আলী ফালুর উত্থান চাচ্ছে। মোসাদ্দেক আলী ফালু যেন এখন রাজনীতিতে সক্রিয় থাকেন সেটা তারা কামনা করছেন।


সাম্প্রতিক সময়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সঙ্গেও মোসাদ্দেক আলী ফালুর এই সাক্ষাতের পর বিএনপিতে খালেদাপন্থীরা আবার চাঙ্গা হয়ে উঠেছেন। অনেকেই মনে করছেন যে, মোসাদ্দেক আলী ফালু যদি রাজনীতিতে সক্রিয় থাকতেন তাহলে বিএনপি একের পর এক এই ভুল সিদ্ধান্তগুলো করতেন না। 


বিএনপির স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য বলেছেন যে, ফালু যখন বেগম খালেদা জিয়ার ঘনিষ্ঠ ছিলেন তখনও তিনি বিএনপির সমালোচনা করতেন, যে কোন সিদ্ধান্তের ব্যাপারে তার নিজস্ব মতামত রাখতেন। এ রকম লোক বিএনপিতে দরকার আছে।


তবে কেউ কেউ মনে করছেন যে, মোসাদ্দেক আলী ফালুর সঙ্গে তারেক জিয়ার এখন সম্পদের ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে একটা টানাপোড়েন চলছে। কারণ খালেদা জিয়ার যে সমস্ত সম্পদ তার একটি বড় অংশ মোসাদ্দেক আলী ফালুর নামে রয়েছে এবং ফালু এই সমস্ত সম্পত্তিগুলো দেখভাল করেন। 


কিন্তু তারেক জিয়া এই সমস্ত সম্পত্তিগুলোর অংশীদারিত্ব চান, মালিকানা চান। এ কারণে তারেক জিয়া গত কিছুদিন ধরে মোসাদ্দেক আলী ফালুর উপর চাপ সৃষ্টি করছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।


আর এ কারণেই মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিষয়টির মধ্যস্থতা করার জন্যই ফালুর সঙ্গে দেখা করেছেন কিনা তা নিয়েও কারও কারও অভিমত রয়েছে। অনেকেই মনে করেন যে, মোসাদ্দেক আলী ফালু একজন ধনাঢ্য ব্যক্তি এবং তার যে বিপুল সম্পদ তা পুরোটাই বেগম খালেদা জিয়ার। 



যেখান থেকে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা সিঁথি কিছু পান এবং সেই টাকা দিয়ে তিনি লন্ডনে চলেন।


এখন তারেক জিয়া এই সমস্ত সম্পদের হিসাব এবং সম্পদগুলো যেন জিয়া পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয় সেজন্য চাপ দিচ্ছেন বলে বিভিন্ন সূত্র দাবি করেছে। আর মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এমন একজন ব্যক্তি যিনি ফালু এবং তারেক জিয়া দুজনেরই ঘনিষ্ঠ এবং আস্থাভাজন। 


তিনি কি তাহলে ফালুর সঙ্গে তারেক জিয়ার সমঝোতা করতেই ওখানে গিয়েছিলেন? নাকি তারেকপন্থীদের কোণঠাসা করার জন্য ফালুকে রাজনীতিতে সামনে আনার নতুন করে চেষ্টা হচ্ছে।


আরও খবর