Logo
আজঃ রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২
শিরোনাম

স্ত্রীকে গ্যাস ট্যাবলেট খাইয়ে হত্যা, শ্বশুর ও শ্বাশুড়ি আটক

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৮৮জন দেখেছেন
Image
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার চকঝুঝুরি গ্রামে নাসিমা  খাতুন (২৩) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে তার স্বামী সুমন আলী পলাতক রয়েছে।

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকালে নিহতের স্বামীর বাড়ির পাশের পুকুর পাড় থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত নাসিমা চক ঝুরঝুরি গ্রামের সরোয়ারের ছেলে সুমনের স্ত্রী।  

স্থানীয়রা জানান, স্বামী সুমনসহ পরিবারের লোকজন নাসিমা খাতুনকে প্রতিনিয়ত নির্যাতন করত। শুক্রবার রাতে তাকে বেধড়ক পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে স্বামী সুমন। পিটিয়ে আহত করার পর জোর করে গ্যাস ট্যাবলেট খাইয়ে পুকুর পাড়ে ফেলে আসে নিহতের স্বামী ও শশুর। পরে নাসিমার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে তাদের কাছে ঘটনার বর্ননা দেয়ার কিছুক্ষন পরেই নাসিমার মৃত্যু হয়।

তাড়াশ থানার (ওসি) তদন্ত নুরে আলম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

মৃত্যুর আগে নিহত নাসিমা উপস্থিত লোকজনের কাছে স্বামী ও শশুরের নির্যাতন ও গ্যাস ট্যাবলেট খাওয়ানোর বিষয়ে ভিডিও  সাক্ষাতকার দিয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার শ্বশুর ও শ্বাশুড়িকে থানায় আনা হয়েছে। তার স্বামী সুমন পলাতক রয়েছে।

আরও খবর



বারহাট্টায় মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে যেতে শীতকালেও নৌকার প্রয়োজন

প্রকাশিত:বুধবার ২৩ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৩১জন দেখেছেন
Image

সোহেল খান দূর্জয় : যাদের হাত ধরে এদেশে স্বাধীনতা এসেছে তাদেরই একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা জজ মিয়া খান। শহরে থেকেও যেন তিনি ভাটি অঞ্চলে বসবাস করছেন।যেখানে অগ্রহায়ণ মাসের ফসল উৎপাদন করে ঘরে তোলা হচ্ছে। সফলী জমি গুলো সরিষা চাষ করার উপযোগী হয়ে খড়খড়া হয়ে গেছে, সেই সময় নেত্রকোনা বারহাট্টা উপজেলা আসমা ইউনিয়নের আসমা গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জজ মিয়া খানের বাড়িতে যেতে নৌকা ব্যবহার করতে হচ্ছে। 

হেমন্তকাল বেদ করে শীত কাল এসে গেছে, এখনও জজ মিয়ার বাড়ির সামনে পানি থইথই করছে। বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জজ মিয়া খানের  বড় সন্তান নূরুল আমিন খান সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগ এর সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা এই বছরের বন্যার পর থেকে খুব কষ্টে আছি। অল্প জায়গার জন্য একটি রাস্তা করতে পারছি না।  এক সাইটের জমি আমার আপন খালু শাহজাহান খান এর , আরেক সাইটের জমি আমার চাচা জানু মিয়ার । আমার ভাই পুলিশে চাকরি করে। সে রাস্তার জন্য  বর্তমান বাজার মূল্য থেকে এই জমির দাম বেশি দিতে চেয়েছে। কিন্তু তাতেও কোন লাভ হচ্ছে না। এখন এই নৌকাটিই আমাদের প্রধান বাহন। এটি ছাড়া এক মুহূর্ত চলতে পারি না। আমার বাবা কয়েকদিন যাবৎ খুব অসুস্থ,ঘর থেকে ধরে ধরে বের করতে হয়। 

এই ব্যপারে কোন অভিযোগ হয়েছে কি-না জানতে চাইলে নূরুল আমিন খান বলেন গত মাস দুয়েক আগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি অভিযোগ দিয়েছি। কিন্তু কোন ফল হয়নি। 

স্হানীয় সূত্রে জানা যায় জজ মিয়া খানের বাড়িতে যেতে সামনে যে জমিটুকু আছে সেই জমির মালিক তার আত্মীয়। জজ মিয়া সরলসোজা মানুষ। অন্য কোন মুক্তিযোদ্ধা হলে এত দিনে রাস্তা হয়ে যেত।

জমির মালিক শাহজাহান খান বলেন, এই জমির পশ্চিম পাশে একটি রাস্তা রয়েছে। ইচ্ছে করলে  ঐ রাস্তা দিয়ে তারা যাতায়াত করতে পারে। আমার দুই ছেলে। এই জায়গা টি বাসা করার জন্য কিনেছি। রাস্তার জন্য কিছু জমি বিক্রি করলে আমার জায়গা কমে যাবে। 

আসমা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম খান চন্দু বলেন, আমি রাস্তা দিতে চাই। কিন্তু রাস্তার দেওয়ার আগেই বাঁধা পড়লে তো তা সম্ভব হয়ে উঠে না। বিষয়টি আসলেই দুঃখ জনক আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করবো, যেন তাড়াতাড়ি এই রাস্তাটি হয়। 

সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শাহ মোহাঃ আবদুল কাদের বলেন, বারহাট্টা শহরের পাশে মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জজ মিয়া খানের বাড়ি। এখানে সারাবছর পানি লেগে থাকে, সে অসুস্থ, তাকে দেখতে গেলে কাঁদা পানির উপর দিয়ে যেতে হয়। এটা আসলেই লজ্জা জনক। আমি চাই দ্রুত যেন এই মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি যাওয়ার রাস্তাটি হয়ে যায়। 

বারহাট্টা উপজেলায় নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম মাজহারুল ইসলাম বলেন, মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জজ মিয়া খানের বাড়িতে যাওয়ার জন্য নিজস্ব কোন ভূমি না থাকায় রাস্তা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। জমির মালিক পক্ষ টাকা দিয়েও জমি বিক্রয় করতে রাজি না হওয়ায় রাস্তাটি হচ্ছে না। এর পরও চেষ্টা করবো যেন রাস্তাটি করা যায়।


আরও খবর



যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর মহাসমাবেশ পরিণত হবে জনসমুদ্রে: পরশ

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৯৫জন দেখেছেন
Image

আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেছেন, ১১ নভেম্বর থেকে যুবলীগের দখলে থাকবে রাজপথ। আমরা ধারণা করছি, যুবলীগের প্রতিষ্ঠার ৫০ বছরে মহাসমাবেশ সোহরাওয়ার্দী উদ্যান জনসমুদ্রে পরিণত হবে। তিনি বলেন, আন্দোলন-সংগ্রামের নামে বিএনপি-জামায়াত যদি এদেশের সাধারণ জনগণের জানমালের ক্ষতি করার চেষ্টা করে তাহলে রাজপথেই তাদের সমুচিত জবাব দিবে যুবলীগ।

বুধবার (৯ নভেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধুর এভিনিউয়ে আওয়ামী যুবলীগ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

পরশ বলেন, আওয়ামী যুবলীগের দীর্ঘ ৫০ বছরের পথ-পরিক্রমায় সকল সংকট-সংগ্রামে যুবলীগের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। যে মুহূর্তে দাঁড়িয়ে আমরা যুবলীগের নেতা-কর্মীরা আনন্দ, উচ্ছ্বাস ও উদ্দীপনা নিয়ে সুবর্ণজয়ন্তী পালন করছি; সেই মুহূর্তে বাংলাদেশ বিরোধী বিএনপি-জামাত স্থিতিশীল বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করছে। ‘চারিদিকে নাগিনীরা ফেলিতেছে বিষাক্ত নিঃশ্বাস। সেই প্রেক্ষাপটে দাঁড়িয়ে আমাদের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন এবং ১১ নভেম্বর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিতব্য যুব মহাসমাবেশ। এই মহা সমাবেশের মধ্য দিয়ে রচিত হবে স্বাধীনতাবিরোধীদের জন্য ইস্পাত-কঠিন ভিত্তি; যা বিএনপি-জামাতের কাছে অজেয়, দুর্লঙ্ঘনীয়। 



আরও খবর



ইউপি চেয়ারম্যানের তিন দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৮৯জন দেখেছেন
Image
জয়নুল আবেদন,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:  ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা ভানোর ইউনিয়নের মৎসজীবী লীগের সভাপতি শাকিল আহমেদ হত্যা মামলার প্রধান আসামি ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলামকে তিন দিনের রিমান্ড দিয়েছে আদালত। 

আজ মঙ্গলবার ( ১৫ নভেম্বর) দুপুরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তার করা পাঁচ  দিনের রিমান্ডের আবেদনের শুনানি শেষে ঠাকুরগাঁও চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক রমেশ কুমার ডাগা এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। সেই সাথে মামলার ১২ নম্বর আসামি তাজুল ইসলাম মানিককে দুই দিন ও ১১ নম্বার আসামি মনির হোসেন কাবাব দুইদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদীপক্ষের আইনজীবী এ্যাড. সৈয়দ আলম। আইনজীবী জানান, তদন্তের স্বার্থে  মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা প্রধান আসামী রফিকুল ইসলাম, তাজুল ইসলাম মানিক ও মনির হোসেনের পাঁচ দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত রফিকুল ইসলামের তিন দিন, মানিক ও মনিরের দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। অপর আসামি মমতাজ আলীর সাত দিনের রিমান্ড চাইলে অসুস্থ থাকায় আদালত তার রিমান্ড মঞ্জুর করেনি। 

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) প্রায় দুই শতাধিক লোকের শোডাউন নিয়ে আদালতে আত্মসমার্পন করে জামিন চাইতে গেলে জামিন না মঞ্জুর করে মামালার প্রধান আসামী রফিকুল ইসলামকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। আগামী ১৬ নভেম্বর আবারো শুনানীর দিন ধার্য করেন ঠাকুরগাঁও জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মামুনুর রশিদ। 

চেয়ারম্যানকে কারাগারে নেওয়ার সময় আদালতে উপস্থিত গণমাধ্যমকর্মীরা ছবি তুলতে গেলে সংবাদকর্মীদের উপর হামলার চেষ্টা করেন তার ভাড়াটে লোকজন। আদালত চত্বরে হত্যা মামলার প্রধান আসামীর দুইশতাধিক লোকের শোডাউন ও সাংবাদিকদের উপর হামলার চেষ্টায় ক্ষোভ প্রকাশ করে জেলার বিশিষ্টজনরা জানান, আদালত একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান। একজন হত্যা মামলার প্রধান আসামীর সাথে এতো লোকজন কিভাবে শোডাউন দিয়ে আদালত চত্বরে প্রবেশ করলো? 

সাংবাদিকদের কাজ হলো তথ্য সংগ্রহ করা। আসামীকে কারাগারে নেওয়ার সময় সাংবাদিকরা যখন ছবি তুলে তখন চেয়ারম্যানের লোকজন সাংবাদিকদের হামলার চেষ্টা করে। আদালতের বারান্দায় সন্ত্রাসীদের এমন ঘটনা সত্যিই আমরা হতাশ। দায়িত্বরত পুলিশ-প্রশাসন এর দায় এড়াতে পারে না। সাংবাদিকদের সাথে সন্ত্রাসীরা কেন এমন মারমুখী আচরণ করল? অবশ্যই প্রশাসন এর জবাব দিবেন। আর বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলে জানান তারা। 

গত ০৩ সেপ্টেম্বর তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার ভানোর ইউনিয়নের হলদিবাড়ী বাজারে ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম ও যুবলীগ নেতা সাঈদ আলম দু'পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে সাঈদ আলমের ভাই মৎসজীবীলীগ নেতা শাকিল আহমেদ মারা যায়। পরে বালিয়াডাঙ্গী থানায় ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামসহ ২০ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন যুবলীগ নেতা সাঈদ আলম। সেই মামলায় এখন পর্যন্ত ৮ জনকে গ্রেফতার করে আইনশৃংখলা বাহিনী। 

আরও খবর



সুজানগর বোনকোলা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ

অফিস সহকারী নিয়োগে অনিয়মমের সম্ভবনা,অভিযোগ এলাকাবাসীর

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৪৩জন দেখেছেন
Image

হুমায়ুন রাশেদ,পাবনা প্রতিনিধি: পাবনা সুজানগর উপজেলার মানিকহাট ইউনিয়নের বোনকোলা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অফিস সহকারী কাম হিসাব সহকারী বিধি মোতাবেক নিয়োগের কথা থাকলেও উক্ত প্রতিষ্ঠানের গর্ভনিং বডির সভাপতি আব্বাস আলী মোল্লিক ও অধ্যাক্ষ নূরুল ইসলামের যোগ সাজসে শিক্ষক নিয়োগ কমিটির প্রতিনিধি পাবনা সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল জব্বার, গভর্নিং বডির সভাপতির ছেলের বউয়ের ১০ লক্ষ টাকার উৎকচের বিনিময়ে নিয়োগ দেওয়ার সম্ভবনা রয়েছে বলে এলাকায় গুনজন উঠেছে।

ইতি মধ্যে এলাবাসীর পক্ষ থেকে স্থানীয় এমপি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা মাধ্যমিক অফিসার সহ বিভিন্ন দপ্তরে  লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে বোনকোলা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যাক্ষ নূরুল ইসলামের সাথে অফিস সহকারী কাম হিসাব সহকারী নিয়োগের অনিয়মের  সম্ভাবনার বিষয় জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন ইতি মধ্যে আমরা সকল নিয়ম মেনে নিয়োগ প্রক্রিয়ার কাজ শেষ করছি, দুই জন বাছাইতে আউট হয়েছে।

এদিকে শিক্ষক নিয়োগ কমিটির প্রতিনিধি পাবনা সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল জব্বার (ভারপ্রাপ্ত জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার) বলেন তারা পাবনায় আসছিলো আমার সাথে তাদের কথা হয়েছে। কোন টাকার বিষয়ে বা লেন দেন হয়নি এগুলো মিথ্যা কথা। তবে নিয়ম মেনে যোগ্য প্রার্থিকে নিয়োগ দেয়া হবে। তবে স্থানীয় বিষয়ে একটু পক্ষ বি পক্ষ থাকতে পারে।

এ বিষয়ে সুজানগর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম ও সুজানরগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোঃ তরিকুল ইসলামের সাথে মুঠো ফোনে বোনকোলা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অফিস সহকারী নিয়োগে অনিয়মমের সম্ভবনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, তাদের লিখিত অভিযোগ এখনও  হাতে পাই নাই, তবে আগামী রবিবার ২৭ তারিখে পরিক্ষার মাধ্যমে সঠিক ও যোগ্য প্রার্থিকে নিয়োগ দেওয়া হবে। এখানে অনিয়মের কোন সুয়োগ নেই। লিখিত অভিযোগের বিষয়ে খোঁজ নেয়া হবে।

উল্লেখ্য গত ১৩ই অক্টোববর ২০২২ইং তারিখে  (সিকে-১৮২৯ মোতাবেক ) দৈনিক ইত্তেফাক,ও স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশিত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি  দিলে উক্ত পদে নির্ধারীত টাইম, নির্ধারীত তারিখের মধ্যে ১৫ জন  আবেদন করেন, ইতি মধ্যে ২জন প্রার্থি বাছাই পর্বে আউট হয়েছে, ১৩জন প্রার্থি ১টি পদের জন্য আগামি কালকের পরিক্ষায় অংশ গ্রহন করবে, যোগ্য প্রার্থি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ পাবে, এমনটাই প্রত্যাশা এলাকাবাসীর।


আরও খবর



পাকিস্তানকে ১৫৩ রানের টার্গেট দিল নিউজিল্যান্ড

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৭৮জন দেখেছেন
Image

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে পাকিস্তানকে ১৫৩ রানের টার্গেট দিয়েছে নিউজিল্যান্ড।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শাহিন আফ্রিদিদের বোলিং তোপে হাত খুলে মারতে পারেনি কিউইরা। পাওয়ার প্লেতে ২ উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত তুলতে পেরেছিল ৩৮ রান।

অধিনায়ক কেন উইলিয়ামস সেই ধাক্কা সামলাতে গিয়ে ৪২ বলে ৪৬ রানের মন্থর ইনিংস খেলেছেন। তবে ৩৫ বলে ৫৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন ডেরিল মিচেল। 


আরও খবর

নেইমার কী পেলে হতে পারবেন?

বৃহস্পতিবার ২৪ নভেম্বর ২০২২

কাতার বিশ্বকাপই কি শেষ নেইমারের ?

সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২