Logo
আজঃ রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২
শিরোনাম

ইউক্রেনের পাশ থেকে কি সরে যাবে ইউরোপ?

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৮৬জন দেখেছেন
Image

দীর্ঘ আট মাস পেরিয়ে গেছে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ। এরই এই যুদ্ধে মধ্যে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে ইউক্রেন। হাতছাড়া হয়েছে লুহানস্ক, ডোনেটস্ক, খেরসন ও জাপোরিঝঝিয়ার মতো গুরুত্বপূর্ণ চারটি অঞ্চল। যদিও এগুলো পুনরুদ্ধারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, তবে এসব ভূখণ্ড রুশ ভূমির সঙ্গে রাখার তীব্র প্রচেষ্টা চালাচ্ছে রাশিয়া। ইতোমধ্যে খেরসনে বিপজ্জনক অভিযানের ঘোষণা দিয়েছে রুশ কর্তৃপক্ষ। এ লক্ষ্যে সেখান থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বেসামরিক লোকজনকে।

এদিকে, দীর্ঘ এই যুদ্ধে ইউক্রেনকে পাশে থেকে সহায়তা করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ ইউরোপী ইউনিয়নের দেশগুলো। যুদ্ধে সহায়তা করতে গিয়ে অর্থনৈতিক টালমাটাল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে ইউরোপজুড়ে। বেসামাল হয়ে পড়েছে মূল্যস্ফীতি। এমতাবস্থায় ইউক্রেনের পাশ থেকে ইউরোপের সরে যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ইউরোপে শুরু হয়েছে শীতকাল। যুদ্ধের কারণে ওই অঞ্চলে দেখা দিয়েছে জ্বালানিসংকট। হু হু করে বাড়ছে জিনিসপত্রের দাম। ফলে মূল্যস্ফীতি চরমে পৌঁছেছে। যুদ্ধ আরও দীর্ঘায়িত হলে এই সংকট আরও ভয়াবহ রূপ নেবে। তখন অর্থনৈতিক পরিস্থিতি আরও বেসামাল হয়ে পড়বে। এমতাবস্থায় ইউক্রেনকে সহায়তা দেওয়া বন্ধ করতে পারে ইউরোপ- এমন আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল–জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউরোপ অনেকটাই রাশিয়ার জ্বালানিসম্পদের ওপর নির্ভরশীল। ফলে ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর রাশিয়ার ওপর বিপুল নিষেধাজ্ঞা জারি সত্ত্বেও দেশটিকে দমন করা যায়নি। আর ইউরোপের এই জ্বালানি নির্ভরতার কারণেই ইউরোপের যেসব দেশ ইউক্রেনের পাশে দাঁড়িয়েছে, দেশগুলোকে ধরাশায়ী করতে জ্বালানিকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে মস্কো।

যদিও ইউরোপের ওই দেশগুলোও বসে নেই। রাশিয়া থেকে প্রাকৃতিক গ্যাস আমদানি বন্ধ করতে নানা উদ্যোগ নিয়েছে তারা। এখন তাদের অগ্রাধিকারের শীর্ষে রয়েছে রাশিয়ার তেল–গ্যাসের বিকল্প কোনও উৎস খোঁজা। শুধু তাই নয়, চলতি শীতে সংকট মোকাবিলায় জ্বালানি সাশ্রয়েও কৌশলও অবলম্বন করছে ইউরোপের দেশগুলো।

ইতোমধ্যে সংকট মোকাবিলায় বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধের পরিকল্পনা থেকে সরে এসেছে জার্মানি। চেকোস্লোভাকিয়ায় সরকারি অফিসগুলোতে পুরোনো বাল্ব সরিয়ে বিদ্যুৎ–সাশ্রয়ী এলইডি বাল্ব ব্যবহার করা হচ্ছে। ইতালিতে ঘরের ভেতরের তাপমাত্রা ১৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি না রাখার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে বলা হয়েছে, কম তাপে খাবার রান্না করতে। ইউরোপের নামীদামি নানা ব্র্যান্ডের দোকানগুলোতে সময়ের আগেই বৈদ্যুতিক বাতি বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

রাশিয়ার ওপর নির্ভরশীলতা কমাতে চলতি নভেম্বরে ৮০ শতাংশ গ্যাস মজুত করার লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছিল ইউরোপের দেশগুলো। সেই লক্ষ্যও পূরণ হয়েছে। অনেক দেশ ৮০ শতাংশেরও বেশি গ্যাস মজুত করেছে। এরপরও সামনের কঠিন শীতের মাসগুলোতে ইউরোপ ইউক্রেনের পাশে থাকবে কি না, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

কেননা, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ঘোষণা দিয়ে বলেছেন, “আমাদের স্বার্থের বিরুদ্ধে গেলে আমরা কিছুই সরবরাহ করব না। গ্যাস, কয়লা, তেল—কিছুই না।” সুতরাং যুদ্ধে ইউক্রেনকে সহায়তা করে রাশিয়ার কাছ থেকে জ্বালানি সহায়তার আশা করা  অবাস্তব।

অন্যদিকে, ইউরোপের দেশগুলোর হাতে মজুত থাকার পরও তাদের রাশিয়া থেকে পাইপলাইনে করে আসা গ্যাসের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে বলে মনে করেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের নিরাপত্তাবিষয়ক বিশেষজ্ঞ রাফায়েল লস। আল–জাজিরাকে তিনি বলেন, যদি রাশিয়া থেকে গ্যাস সরবরাহে বাধা আসে, তাহলে ইউরোপের দেশগুলোর বাসাবাড়ি ও শিল্পকারখানায় এর প্রভাব পড়বে।

তাছাড়া উত্তর আমেরিকা, উপসাগরীয় দেশগুলো ও নরওয়ে থেকে আসা জ্বালানি রাশিয়ার জ্বালানির বিকল্প হিসেবে পুরোপুরি চাহিদা পূরণ করতে পারবে না। নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ রাফায়েল লস বলেন, এমন পরিস্থিতিতে পুতিন আশা করছেন, শীতের প্রকোপ থেকে বাঁচতে ইউক্রেনের বিপুল পরিমাণ বাসিন্দা আশপাশের দেশগুলোতে পাড়ি জমাবেন।

তিনি আরও বলেন, পুতিন যদি চলমান ‘জ্বালানিযুদ্ধ’ কাজে লাগিয়ে ইউরোপের দেশগুলোতে জনবিক্ষোভ শুরু করাতে পারেন; অভিবাসনসংকট জোরদার করতে পারেন এবং ভুয়া তথ্য ছড়ানোয় সফল হন, তাহলে এর প্রভাবে ইউক্রেনে ইউরোপের দেশগুলোর সহায়তার হার কমে যেতে পারে। আর পুতিন এটাই চাইছেন।

আর এক্ষেত্রে পুতিন সফল হলে ইউক্রেনের পাশ থেকে সরে দাঁড়াতে পারে ইউরোপের দেশগুলো। 


সূত্র: আল জাজিরা



আরও খবর



যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর মহাসমাবেশ পরিণত হবে জনসমুদ্রে: পরশ

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৯৫জন দেখেছেন
Image

আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেছেন, ১১ নভেম্বর থেকে যুবলীগের দখলে থাকবে রাজপথ। আমরা ধারণা করছি, যুবলীগের প্রতিষ্ঠার ৫০ বছরে মহাসমাবেশ সোহরাওয়ার্দী উদ্যান জনসমুদ্রে পরিণত হবে। তিনি বলেন, আন্দোলন-সংগ্রামের নামে বিএনপি-জামায়াত যদি এদেশের সাধারণ জনগণের জানমালের ক্ষতি করার চেষ্টা করে তাহলে রাজপথেই তাদের সমুচিত জবাব দিবে যুবলীগ।

বুধবার (৯ নভেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধুর এভিনিউয়ে আওয়ামী যুবলীগ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

পরশ বলেন, আওয়ামী যুবলীগের দীর্ঘ ৫০ বছরের পথ-পরিক্রমায় সকল সংকট-সংগ্রামে যুবলীগের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। যে মুহূর্তে দাঁড়িয়ে আমরা যুবলীগের নেতা-কর্মীরা আনন্দ, উচ্ছ্বাস ও উদ্দীপনা নিয়ে সুবর্ণজয়ন্তী পালন করছি; সেই মুহূর্তে বাংলাদেশ বিরোধী বিএনপি-জামাত স্থিতিশীল বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করছে। ‘চারিদিকে নাগিনীরা ফেলিতেছে বিষাক্ত নিঃশ্বাস। সেই প্রেক্ষাপটে দাঁড়িয়ে আমাদের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন এবং ১১ নভেম্বর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিতব্য যুব মহাসমাবেশ। এই মহা সমাবেশের মধ্য দিয়ে রচিত হবে স্বাধীনতাবিরোধীদের জন্য ইস্পাত-কঠিন ভিত্তি; যা বিএনপি-জামাতের কাছে অজেয়, দুর্লঙ্ঘনীয়। 



আরও খবর



হরিপুরে জমি নিয়ে বিরোধে কুলসুম নামে একজন মর্মান্তিকভাবে জখম

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ১৩১জন দেখেছেন
Image

জয়নাল আবেদিন: হরিপুরে জমি নিয়ে বিরোধে কুলসুম নামে একজনকে হাসুয়া এবং কোদাল দিয়ে গলায় এবং কানে আঘাত করে মর্মান্তিকভাবে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা । গলা এবং কানে তাতে কিছু অংশ কেটে  গিয়ে প্রচুর রক্তক্ষরন হয়ে হরিপুর হাসপাতালে ভর্তি হয়।

তাদের বাড়ি হরিপুর উপজেলার ১নং গেদুরা ইউনিয়নের পঁচাঘুড়িয়া গ্রামের শেখার মোরে।

জানা গেছে দুর্বৃত্ত সলিম,সাহেদ গোলজান দেশিয় অস্থ নিয়ে কুলসুম সহতার পরিবারের লোকজনের উপর আক্রমণ করে এলোপাথারি ভাবে মারপিট করে এবং হাসুয়া দিয়ে কোপ দেয়।পরে স্থানিয় লোকজন এসে তাদের রক্ষা করে।

এই ব্যাপারে হরিপুর থানায় একটি এজহার করা হয় বলে হরিপুর থানার অসি মোঃ তাজুল ইসলাম  বিষয়টি নিশ্চিত  করেন।


আরও খবর



পাকিস্তানকে ১৫৩ রানের টার্গেট দিল নিউজিল্যান্ড

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৭৮জন দেখেছেন
Image

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে পাকিস্তানকে ১৫৩ রানের টার্গেট দিয়েছে নিউজিল্যান্ড।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শাহিন আফ্রিদিদের বোলিং তোপে হাত খুলে মারতে পারেনি কিউইরা। পাওয়ার প্লেতে ২ উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত তুলতে পেরেছিল ৩৮ রান।

অধিনায়ক কেন উইলিয়ামস সেই ধাক্কা সামলাতে গিয়ে ৪২ বলে ৪৬ রানের মন্থর ইনিংস খেলেছেন। তবে ৩৫ বলে ৫৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন ডেরিল মিচেল। 


আরও খবর

নেইমার কী পেলে হতে পারবেন?

বৃহস্পতিবার ২৪ নভেম্বর ২০২২

কাতার বিশ্বকাপই কি শেষ নেইমারের ?

সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২




চমক রেখেই বিশ্বকাপের দল ঘোষণা ব্রাজিলের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৮ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৯৭জন দেখেছেন
Image

দেখতে দেখতেই চার বছর পেরিয়ে আবারও দোড়গোড়ায় আরেকটি বিশ্বকাপ। কাতারের মাটিতে আর কদিন পরই বসতে চলেছে দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ। বিশ্বকাপকে সামনে রেখে নিজেদের শেষ মুহুর্তের কাজগুলো সেরে রাখতে ব্যস্ত দলগুলো। এর মধ্যেই শুরু হয়েছে অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর দল ঘোষণা। সোমবার (৭ নভেম্বর) ২৬ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে পাঁচ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল।

বিশ্বকাপের জন্য ঘোষিত তিতের ব্রাজিল দলে জায়গা পাননি অ্যাস্টন ভিলার তারকা ফিলিপে কৌতিনহো। এমনিতেই ছিলেন না ফর্মে, তার ওপর ভিলার অনুশীলনের সময় পেশির ইঞ্জুরিতে পড়ে তিতের কাজটা সহজই করে দিয়েছেন কৌতিনহো। ব্রাজিলের বিশ্বকাপ দলে জায়গা হয়নি লিভারপুলের স্ট্রাইকার রবার্তো ফিরমিনোরও।

তবে অনেকটা চমকের মতোই কাতারগামী বিমানে ব্রাজিল দলের সঙ্গী হবেন ৩৯ বছর বয়সী দানি আলভেজ। বয়স বিবেচনায় তার জায়গা পাওয়া নিয়ে সন্দিহান থাকলেও তিতে তার অভিজ্ঞতা আর ব্যক্তিগত স্কিলকেই প্রাধান্য দিয়েছেন। এছাড়া সর্বশেষ প্রীতি ম্যাচের দলে না থাকলেও বিশ্বকাপের জন্য ডাক পেয়েছেন আর্সেনাল ফরোয়ার্ড গ্যাব্রিয়েল জেসুস। ব্রাজিলের বিশ্বকাপ স্কোয়াড:

গোলরক্ষক: অ্যালিসন বেকার (লিভারপুল), এডারসন মোরায়েস (ম্যানচেস্টার সিটি), ওয়েভারটন (পালমেইরাস)।

ডিফেন্ডার: দানিলো (জুভেন্টাস), দানি আলভেস (পুমাস), অ্যালেক্স সান্দ্রো (জুভেন্টাস), অ্যালেক্স টেলেস (সেভিলা), থিয়াগো সিলভা (চেলসি), মারকুইনহোস (পিএসজি), এডার মিলিতাও (রিয়াল মাদ্রিদ), ব্রেমার (জুভেন্টাস)।

মিডফিল্ডার: ক্যাসেমিরো (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড), ফ্যাবিনহো (লিভারপুল), ব্রুনো গুইমারেস (নিউক্যাসল ইউনাইটেড), ফ্রেড (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড), লুকাস পাকুয়েতা (ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড), এভারটন রিবেইরো (ফ্ল্যামেঙ্গো)।

ফরোয়ার্ড: নেইমার জুনিয়র (পিএসজি), ভিনিসিয়াস জুনিয়র (রিয়াল মদ্রিদ), গ্যাব্রিয়েল জেসুস (আর্সেনাল), অ্যান্টনি (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড),রাফিনহা (বার্সেলোনা), রিচার্লিসন (টটেনহ্যাম হটস্পার), গ্যাব্রিয়েল মার্টিনেলি (আর্সেনাল), রদ্রিগো (রিয়াল মাদ্রিদ), পেদ্রো (ফ্ল্যামেঙ্গো)।


আরও খবর

নেইমার কী পেলে হতে পারবেন?

বৃহস্পতিবার ২৪ নভেম্বর ২০২২

কাতার বিশ্বকাপই কি শেষ নেইমারের ?

সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২




খেরসনে যুদ্ধাপরাধ করেছে রাশিয়া: জেলেনস্কি

প্রকাশিত:সোমবার ১৪ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ৬২জন দেখেছেন
Image

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি দাবি করেছেন, রাশিয়ার সেনারা খেরসনে যুদ্ধাপরাধ করেছে। তিনি জানান, রুশ সেনাদের দখলকৃত খেরসনে প্রায় চার শতাধিক যুদ্ধাপরাধ সংঘটিত হয়েছে। তদন্তকারীদের অনুসন্ধানে এই তথ্য উদঘাটিত হয়েছে। বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, রাশিয়া ও ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর থেকে ইউক্রেনের বুচা, ইজিয়াম ও মারিউপোলে গণকবর পাওয়া গেছে। এই নৃশংসতার জন্য রাশিয়ান সেনাদের দায়ী করেছে ইউক্রেন। 

তবে এখন পর্যন্ত বিবিসি এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করতে পারেনি। অভিযোগ অস্বীকার করে মস্কো জানিয়েছে, মস্কোর সেনারা ইচ্ছাকৃতভাবে কোনও সাধারণ নাগরিককে হত্যা করেনি।

খেরসন স্বাধীন হয়ে গেলেও ইউক্রেন কর্তৃপক্ষ শহরটিতে কারফিউ জারি করেছেন। খেরসনে যাওয়া আসা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এক ভিডিও বার্তায় জেলেনস্কি জানান, রুশ সেনারা দেশের যেসব অঞ্চলে প্রবেশ করেছে সেখানেই নৃশংসতা করেছে। তারা খেরসনেও এই একই কাজ করে গেছে। তারা অবশ্যই এসব হত্যাকাণ্ডের বিচার করবেন।

ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেন আগ্রাসনের পর খেরসনই একমাত্র অঞ্চল যা দীর্ঘদিন ধরে রুশ সেনাদের দখলে ছিলো। গত সেপ্টেম্বরে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন ক্রেমলিনের একটি অনুষ্ঠানে খেরসনসহ আরও তিনটি অঞ্চলকে রাশিয়ার ভূখণ্ড বলে দাবি করেন। কিন্তু শুক্রবার (১১ নভেম্বর) খেরসনকে ইউক্রেন সেনারা স্বাধীন করেছেন।

প্রায় ৩০ হাজার রাশিয়ান সেনাকে অপসারণ করার পর খেরসনের অফিসিয়াল কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তবে অনেকের মনে আশঙ্কা রয়েছে, কিছু সংখ্যক রাশিয়ান সেনা এখনো ছদ্মবেশে ইউক্রেনে লুকিয়ে থাকতে পারে।

এ বিষয়ে দেশটির প্রেসিডেন্ট জানান, রাশিয়ার সেনাদের আটক করা হয়েছে। তবে যারা এসব নৃশংসতার পেছনে আছেন তাদের শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। ইউক্রেনের সেনারা ইন্টারনেট ও টিভি সংযোগ করার জন্য কাজ করছেন। যতদ্রুত সম্ভব পানি ও বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে।



আরও খবর